চট্টগ্রাম রবিবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১

২ জুন, ২০১৯ | ১১:৫৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে ফিরিয়ে দেয়া হলো যাত্রীদের বাড়তি ভাড়া

বাস কাউন্টারগুলোতে অব্যাহত রয়েছে বিআরটিএ’র ভ্রাম্যমাণ আদালতের মনিটরিং কার্যক্রম। বাড়তি ভাড়া ও যাত্রী হয়রানি বন্ধে আজ রাতে নগরীর অলংকার মোড়ের কাউন্টারগুলোতে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত-১২ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক। রাত ৯.০০ টা থেকে ১০.০০টা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানে দেখা যায় নোয়াখালীর হাতিয়া-চেয়ারম্যান ঘাটাগামী রেসালাহ ও বাঁধন পরিবহনে ২৫০ টাকার ভাড়া ৩৫০ টাকা করে নেয়া হচ্ছে। কাউন্টারে প্রচুর যাত্রীর ভিড় ছিলো। ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক কাউন্টার দুটিকে জরিমানা না করে তাৎক্ষণিক যাত্রীদের কাছ থেকে নেয়া অতিরিক্ত ভাড়া তাদেরকে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য কাউন্টার ম্যানেজারকে নির্দেশ দিলে ম্যানেজার উপস্থিত সকলের বাড়তি ভাড়া ফেরত দেন।

বিজ্ঞাপন

এরপর ফেনীগামী স্টারলাইন পরিবহনের কাউন্টারে প্রতি টিকিটে ২০ টাকা করে অতিরিক্ত রাখায় তিনি কাউন্টার ম্যানেজারকে অতিরিক্ত এক টাকাও নেয়া যাবে না বলে সতর্ক করে দেন। নীলাচল পরিবহন অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে মর্মে অভিযোগ থাকায় তিনি পাশের নীলাচল বাস কাউন্টারে অভিযান চালাতে গেলে কাউন্টারের লোকজন অভিযানের খবর পেয়ে কাউন্টার বন্ধ করে পালিয়ে যান। পাশের শাহী কাউন্টারেও কাউকে পাওয়া যায়নি। যার ফলে এ দুটি পরিবহনের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়নি। এর আগেও বাড়তি ভাড়ার অভিযোগে শাহী সার্ভিসকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছিলো।

অভিযানের খবর পেয়ে অলংকার ও এ কে খান এলাকার কাউন্টারগুলো সতর্ক হয়ে যায়। ঈদ পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 286 People

সম্পর্কিত পোস্ট