চট্টগ্রাম বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

৩০ মে, ২০১৯ | ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ

ইমরান বিন ছবুর

২১ ও ২৮ জুন লিখিত পরীক্ষা

আবেদনকারী ৯৮ হাজার ৯৭০ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের তারিখ পরিবর্তন

চট্টগ্রাম জেলার প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। ৩১ মে এর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২১ জুন এবং ১৪ জুন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ জুন। তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপের লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ৯৮ হাজার ৯৭০ জন শিক্ষার্থী। চট্টগ্রাম জেলায় এবার রেকর্ড সংখ্যক আবেদন জমা পড়েছে। এত সংখ্যক আবেদন আগে কখনো জমা পড়েনি। ২১ জুন পরীক্ষায় চট্টগ্রামের ১২টি থানা ও উপজেলা থেকে অংশগ্রহণ করবে ৪৯ হাজার ৯৮২ জন পরীক্ষার্থী। ২৮ জুন ৮টি উপজেলা থেকে অংশগ্রহণ করবে ৪৯ হাজার ১৮৮ জন। চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, ২১ জুন চট্টগ্রামের ১২টি থানা ও উপজেলায় তৃতীয় ধাপের লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ৪৯ হাজার ৭৮২ জন। এরমধ্যে ডবলমুরিং থানায়

পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২ হাজার ৭৫৪ জন। পাহাড়তলী থানায় ৩ হাজার ৫৯০ জন, বন্দর থানায় ২ হাজার ৩২৫ জন, পাঁচলাইশ থানায় ৩ হাজার ৭৬ জন, চান্দগাঁও থানায় ২ হাজার ৮৫৭ জন ও কোতোয়ালী থানায় ৩ হাজার ৫৭ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। এছাড়া, বাঁশখালী উপজেলায় পরীক্ষার্থী রয়েছে ৭ হাজার ২৬২ জন, রাউজান উপজেলায় ৬ হাজার ২৭৬ জন, সন্দ্বীপ উপজেলায় ৩ হাজার ৯২৯ জন, ফটিকছড়ি উপজেলায় ৫ হাজার ৬৯৪ জন, আনোয়ারা উপজেলায় ৪ হাজার ৭৯৯ জন এবং লোহাগাড়া উপজেলায় পরীক্ষার্থী রয়েছে ৪ হাজার ১৬৩ জন।
এছাড়া, ২৮ জুন চতুর্থ ধাপের লিখিত পরীক্ষায় ৮টি উপজেলা থেকে অংশগ্রহণ করবে ৪৯ হাজার ১৮৮ জন। এরমধ্যে পটিয়া উপজেলা থেকে অংশগ্রহণ করবে ৯ হাজার ৯৯৪ জন, বোয়ালখালী উপজেলা থেকে ৪ হাজার ৮০২ জন, চন্দনাইশ থেকে ৪ হাজার ৭৪৮ জন, হাটহাজারী থেকে অংশগ্রহণ করবে ৬ হাজার ২৪৫ জন। এছাড়া, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা থেকে অংশগ্রহণ করবে ৫ হাজার ৫ জন, মিরসরাই থেকে ৭ হাজার ৩১ জন, সীতাকু- থেকে ৪ হাজার ৯৭৮ জন এবং সাতকানিয়া উপজেলা থেকে ৬ হাজার ৩৮৫ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে।
এ সম্পর্কে চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নাসরিন সুলতানা জানান, চট্টগ্রামে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। ৩১ মে এর পরিবর্তে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২১ জুন এবং ১৪ জুন এর পরিবর্তে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ জুন। এই দুই ধাপের লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ৯৮ হাজার ৯৭০ জন শিক্ষার্থী। যা এ যাবত রেকর্ড সংখ্যক আবেদন। এর আগে চট্টগ্রামে এত সংখ্যক আবেদন কখনো জমা পড়েনি।
তিনি আরো জানান, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর আমাদের জেলা সদরের মধ্যে অবস্থিত কেন্দ্র সমূহের নাম জানতে চেয়েছে। এছাড়া পরীক্ষার্থীর সংখ্যা, কেন্দ্রের কক্ষ সংখ্যা, কক্ষ নম্বর ও ধারণ ক্ষমতা এবং প্রতিটি কক্ষ নম্বরের বিপরীতে কলাম ও সারি সংখ্যা কত তাও জানাতে বলা হয়েছে। যা আমরা নির্দিষ্ট সময়ে পাঠিয়ে দিয়েছি। আবেদনকারীরা পরীক্ষার প্রায় এক সপ্তাহ আগে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 614 People

সম্পর্কিত পোস্ট