চট্টগ্রাম সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

২৯ মে, ২০১৯ | ১:৪৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নাজিরহাট

পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ

নাজিরহাট পৌরসভা ৪ নং ওয়ার্ডবাসীর

ফটিকছড়ি থানা পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ নানা হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নাজিরহাট পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের অধিবাসীরা।
গত ২৭ মে ওই ওয়ার্ডের বটতলে উক্ত সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের বিরুদ্ধে পুলিশের নানান হয়রানির বর্ণনা দিয়ে বক্তব্য রাখেন। দিনমজুর এমরান (১৯) তার বক্তব্যে বলেছেন- বুধবার সারাদিন রোজা রেখে কাজ করেছি। রাতে গরমের কারণে ঘরের সামনে রাস্তায় হাঁটতে বের হই। হঠাৎ সামনে দেখি পুলিশ। আমাকে মাদক সেবনকারী, ব্যবসায়ী ইত্যাদি বলে নানান হুমকি-ধামকি দিয়ে মোবাইল ও মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। ব্যাগে ১৫শ টাকা ছিল। পরদিন পুলিশের কাছে মোবাইলের জন্য গেলে পুলিশ ৫ হাজার টাকা দাবি করে।
স্থানীয় পানারিখিল এলাকার ব্যবসায়ী আবুল কালাম জানান, পুলিশ সাদা পোশাকে এসে আমাদের দোকান থেকে তুলে নেয়ার চেষ্টা করে। পরে ১ হাজার, অপরজন ৩ শত টাকা দিয়ে পুলিশের কাছ থেকে ছাড়া পাই। ভুক্তভোগী ট্রাক ডাইভার মোহাম্মদ দেলোয়ার বলেন, গত বুধবার রাতে পুলিশ আমাকে আমার বাড়ির পাশ থেকে ধরে নিয়ে যায়। স্থানীয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন মাদক ব্যবসায়ী ছিল- তার ঘরে প্রতিদিন জুয়া, মাদকের আসর বসে ইত্যাদি আমার মুখ দিয়ে স্বীকার করানোর চেষ্টা করে। পুলিশের মার খেলে আমি অজ্ঞান হয়ে যাই। পরদিন আমাকে চালান করে। আমি গত রবিবার রাতে জামিনে বের হয়েছি। এভাবে স্থানীয়রা পুলিশি হয়রানির নানান বর্ণনা দেন। তারা দিনমজুর গ্রামের নিরীহ মানুষের ওপর ফটিকছড়ি থানা পুলিশের হয়রানি বন্ধের দাবি জানান। দোষী পুলিশের বিচার দাবি করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন, ওমান কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নূর উদ্দিন, সমাজসেবক মাহাবুবুল আলম, আলী আকবর, জয়নাল আবেদীনসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 335 People

সম্পর্কিত পোস্ট