চট্টগ্রাম রবিবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

২১ মে, ২০১৯ | ৩:০২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাজারো ‘বৃষ্টির’ পাশে রবি

দূর্ঘটনায় কাঁধ থেকে শরীরের বা হাতটি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় নগরীর টাইগার পাস মোড়ের রেললাইন বস্তিতে থাকা বৃষ্টির। তার বয়স কেবল মাত্র সাত। আর এই বয়সেই এক হাত নিয়ে দু’বেলা আহারের জন্য জীবন যুদ্ধ করছে সে। এক হাতে ভিক্ষার বাটি নিয়ে ঘুরছে এক দুয়ার থেকে অন্য দুয়ারে। কখনও হাতে থাকা ভিক্ষার বাটিটি দু’বেলা আহারের যোগাড় দিলেও কখনো কখনো থাকতে হয় দিনের পর দিন না খেয়ে। তবুও ক্ষুধার জ্বালা মেটাতে ছুটতে থাকে বৃষ্টি। সমাজের চোখে বৃষ্টির পরিচয় ভিক্ষুক বা পথশিশু হিসেবে। আর বৃষ্টির মত এমন হাজারো পথশিশুর হাতে এ পবিত্র রমজান মাসে বিনামূল্যে ইফতার তুলে দিচ্ছে মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানি রবি।
‘চলুন একসঙ্গে পথশিশুদের হাতে তুলে দিই ভালো ইফতার’-এ স্লোগান সামনে রেখে দেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ইফতারি তুলে দিচ্ছে রবি। আর এ উদ্যোগে সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন।
প্রতিদিন চট্টগ্রামের প্রায় দুই হাজার শিশুর হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে ইফতারসামগ্রী। আর পথশিশুদের হাতে ইফতার তুলে দিতে নগরীর ১১টি স্থানে ‘আমার ইফতার’ ভেন্ডিং মেশিন বসিয়েছে রবি।
গতকাল সোমবার সরিজমিন সিআরবি’র সিরিজতলা মাঠে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় তিন শতাধিক শিশুর মধ্যে ইফতারি বিতরণ করছেন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের জামাল উদ্দিন, রানা আহমেদ, জান্নাতুল মাওয়া, মং সাথই মারমা ও জোবাইয়ের হানিফসহ বেশ কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক।
এ সময় অন্যান্য সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মত হাতে ইফতারি পেয়ে মুখে খুশির ঝিলিক ফোটে বৃষ্টির। এক প্যাকেট ‘আমার ইফতার’ পেয়ে বৃষ্টি বলেন, আমার মা সেলিনা বেগমও ভিক্ষা করে। আজ এই ইফতার পেয়ে খুব ভালো লাগছে। বাসায় গিয়ে মা’র সাথে বসে ইফতার খামু’।
দশ বছরের এতিম হোসেনও ‘আমার ইফতার’ হাতে পেয়ে বেশ খুশি। হোসেন পূর্বকোণকে বলেন,‘আমাদের তারা ভালো মানের ইফতারি দিছে। আজ বাসায় গিয়ে আম্মার সাথে ইফতারি করমু। আম্মু প্রতিদিন মানুষের বাসায় কাজ শেষে ইফতার নিয়ে আসে। আজ আমিও ইফতার নিয়ে যামু আর এক সাথে খামু। প্রতি রমজানেই সমাজের জন্য কিছু চেষ্টা করে রবি। এ রমজানে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে ডিজিটাল ইফতার ভেন্ডিং মেশিন এনেছে রবি ও বিদ্যানন্দ। আঙুলের একটি ছাপেই পথশিশুরা সেখান থেকে পাবে সুস্বাদু ইফতারি বাক্স। তবে আপনার সহযোগিতা এ উদ্যোগকে করতে পারে আরও সমৃদ্ধ। রবি প্রি-পেইড নম্বরে ৪৩ ও ১১৮ টাকা রিচার্জ করলেই আপনার পক্ষ থেকে যথাক্রমে ২ ও ৪ টাকার চলে যাবে এ উদ্যোগে। আর রবির পক্ষ থেকে আপনি পাবেন ৭ ও ১০ দিন মেয়াদি ৭৫ ও ২০১৫ মিনিটের আকর্ষণীয় মিনিট প্যাক।

বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 405 People

সম্পর্কিত পোস্ট