চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

সর্বশেষ:

২৯ জানুয়ারী, ২০২০ | ৪:২৪ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেহাল সড়কে সীমাহীন ভোগান্তি

নাসিরাবাদ শিল্প এলাকা বাংলাবাজার রোডের আল আমিন মসজিদ সংলগ্ন সড়ক

নগরীর নাসিরাবাদ শিল্প এলাকার টেক্সটাইল মোড় হতে বাংলাবাজার রোডের আল আমিন মসজিদ সংলগ্ন সড়কটির এখন বেহাল দশা। এই সড়কের পাশে রয়েছে সিগনেট বক্স, বার্জার, এভারগ্রিনসহ একাধিক শিল্পকারখানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বাংলাবাজারের হাজারো শ্রমজীবী মানুষও এই সড়ক দিয়ে চলাচল করে। দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত এই সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারীদের দুর্ভোগের কান্না চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন শুনছে না। সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা গেছে, টেক্সটাইল মোড় থেকে বাংলা বাজার পর্যন্ত আল আমিন মসজিদ সড়কটিতে বড় বড় গর্ত। সড়কের পাশে স্তূপ করে রাখা হয়েছে মাটি আর আবর্জনা। একে তো এবড়ো-থেবেড়ো। দ্বিতীয়ত মাটি ও আবর্জনা ফেলে সড়কটিকে সংকুচিত করে ফেলা হয়েছে। এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে পলি ফ্যাক্টরি, ওয়াসিং ফ্যাক্টরি, সিগনেট বক্সসহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ শিল্পকারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারি। এসব শিল্প কারখানার পণ্যবাহী ভারী যানবাহন অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করে সড়কটি দিয়ে। গাড়ির

চাকা কখন গর্তে পড়ে পণ্যবাহী গাড়ি উল্টে যায়, সেই আশঙ্কায় অত্যন্ত সতর্কতার সাথে গাড়ি চালান চালকরা। এছাড়া গ্রিন ভিউ আবাসিক এলাকা, বায়েজিদ নগর সোসাইটির মানুষ ছাড়াও বাংলা বাজারের হাজারো শ্রমজীবী মানুষ এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাও এটি দিয়ে যাতায়াত করে। তাদের দুর্ভোগের সীমা নেই। একাধিক ভুক্তভোগীর সাথে আলাপকালে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, শহরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এলাকার একটি সড়কের এমন করুন দশা হবে তা কেউ চিন্তাও করেনি। এই সড়কে অনেক সময় শুষ্ক মৌসুমেও ময়লা পানি জমে থাকে। যানবাহনের চাকা গর্তে পড়ে ময়লা পানি ছিটকে শিক্ষার্থী এবং মুসল্লিদের কাপড় নষ্ট হয়ে যায়। এই দুর্ভোগ থেকে মুক্তি চান সড়কটি দিয়ে চলাচলকারীরা। তারা এর উন্নয়ন করার জন্য তারা সিটি কর্পোরেশনের প্রতি দাবি জানান।

এবিষয়ে কথা বলার জন্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বশীল প্রকৌশলীকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

The Post Viewed By: 90 People