চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০২ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

রংপুরকে উড়িয়ে প্লে অফে ঢাকা

৯ জানুয়ারি, ২০২০ | ৫:০১ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

কুমিল্লার আশা ধূসর করে চারের পথে খুলনা

রংপুরকে উড়িয়ে প্লে অফে ঢাকা

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও রাজশাহী রয়েলসের কাতারে নাম লিখিয়েছে ঢাকা প্লাটুন। শুধু লেখানোই নয়, রাজশাহীকে তিনে ঠেলে মাশরাফির দলের অবস্থান এখন দুই নম্বরে। শীর্ষে অবস্থান চট্টগ্রামের। বিপিএলে লড়াই এখন প্লে-অফের চার নম্বর স্থানটির জন্য। তাতে লড়াই চলছে ১০ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট পাওয়া খুলনা (বর্তমানে চার নম্বরে) ও ১১ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট পাওয়া তালিকার পাঁচে থাকা কুমিল্লার। অবস্থাদৃষ্টে খুলনার সম্ভাবনাই বেশি, কুমিল্লাকে তাকিয়ে থাকতে হবে অসম্ভব কিছু যদি কিন্তুর দিকে। আসরে গতকাল প্রথম ম্যাচে খুলনা টাইগার্সের কাছে ৩৪ রানে হেরে অনেকটাই ব্যকফুটে চলে যায় কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। ওদিকে রাতের ম্যাচে রংপুরকে হারিয়ে প্লে অফ নিশ্চিত করেছে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুন। রংপুর রেঞ্জার্সকে ৬১ রানের ব্যবধানে হারিয়ে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই প্লে অফ নিশ্চিত করেছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। ঢাকার এই জয়ে সব থেকে বড় ভূমিকা রেখেছেন অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান আর অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। মাশরাফি বিন মুর্তজা আর মেহেদী হাসানের আগুন ঝরা বোলিংয়ে রংপুর রেঞ্জার্সকে ৮৪ রানেই অল আউট করে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুন। ১৪৬ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে রংপুর। আর এর পেছনে বড় ভূমিকা রাখেন

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা আর অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান। অধিনায়ক মাশরাফি ৪ ওভারে ১৮ রানে ২টি ও মেহেদী ৩.৩ ওভারে মাত্র ১৩ রান খরচায় ৩ উইকেট লাভ করেন।

দিনের প্রথম ম্যাচে শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে ২ উইকেটে ১৭৯ রানের বড় সংগ্রহ গড়ে খুলনা টাইগার্স। খুলনার পক্ষে রাইলি রুশো মাত্র ৩৬ বলে ৭১ রান করেন। জবাব দিতে নেমে ১০ বল হাতে রেখে ১৪৫ রানে অলআউট হয়ে যায় কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। আগের ম্যাচে একাদশ থেকে বাদ পড়া সাব্বির রহমান গতকাল ওপেনিংয়ে নেমে ঝড় তুলেছিলেন। কিন্তু তার ৬২ রানের ইনিংসটি দলকে জেতাতে পারেনি। জয়ে সেরা চারের পথ উজ্জ্বল করল খুলনা। ১০ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত টেবিলের চারে তারা। গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ দুম্যাচের একটিতে জিতলেই কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত হয়ে যাবে। দুটিতেই হারলেও সুযোগ থাকবে, সেক্ষেত্রে অন্যদের জয়-পরাজয় ও রানরেটের দিকে নজর রাখতে হবে। হাতে দুটি ম্যাচ থাকায় টাইগার্সদের বিপদের ঝুঁকি কিছুটা কম!

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 106 People

সম্পর্কিত পোস্ট