চট্টগ্রাম সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

১ ডিসেম্বর, ২০১৮ | ১:৫৩ পূর্বাহ্ণ

পূর্বকোণ স্পোর্টস ডেস্ক

পেসারহীন বাংলাদেশ

স্পিন চতুষ্টয়ে রেকর্ড

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ১৯৮৪ সালের ইংল্যান্ড সফরটা দারুণ কেটেছিল। বিশেষ করে পেসারদের। ৫ টেস্টে ইংল্যান্ডের ১০০ উইকেটের ৯৪টি নিয়েছিলেন পেসাররা। ৫ টেস্টের প্রতিটিতে খেলেছিলেন চারজন করে পেসার। চার পেস চতুষ্টয় পেটারসন, মাইকেল হোল্ডিং, জোয়েল গার্নার ও ম্যালকম মার্শাল ছিলেন নজরকাড়া। ওই সফরের দ্বিতীয় টেস্টে আবার চোটের কারণে খেলতে পারেননি মাইকেল হোল্ডিং। তার জায়গায় এসেছিলেন কোর্টনি ওয়ালশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্বর্ণযুগ ছিল ওই সময়টা। কোর্টনি ওয়ালশের আগমনে ক্যারিবীয় পেস আক্রমণ হয়ে উঠে আরো আক্রমণাত্মক। ওয়ালশের কাছে টেস্ট ক্রিকেট মানেই গতির ঝড়, ডেডলি বাউন্সার আর দুর্বোধ্য বোলিং। অথচ টেস্ট ক্রিকেটে ৩৪ বছর পর তার এমন দিন দেখতে হবে তা কি কল্পনা করেছিলেন? বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ক্যারিবীয় কিংবদন্তি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলছে বাংলাদেশ। অথচ বাংলাদেশ একাদশে নেই এক পেসারও! ভাবা যায়?
১৮ বছর ধরে টেস্ট ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। এর আগের প্রতিটিতেই খেলেছে কমপক্ষে একজন করে পেসার। গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলায় নেই কোনো দ্রুতগতির বোলার।
চট্টগ্রামে শেষ টেস্টেও খেলেছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। গতকাল সেই সুযোগটিও নেই। তার পরিবর্তে বাড়তি ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাসকে নিয়ে খেলছে বাংলাদেশ। আর দ্বিতীয়বারের মতো টেস্টে চার স্পিনার নামিয়ে রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের ২২ গজে বল ঘুরিয়েছেন সাকিব, মিরাজ, তাইজুল ও নাঈম। ১৪১ বছরের টেস্ট ক্রিকেটে এর আগে ভারতই একবার টেস্টে চার বিশেষজ্ঞ স্পিনার নামিয়েছিল। ১৯৬৭ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এজবাস্টনে খেলেছিলেন ভগবত চন্দ্রশেখর, বিষেণ সিং বেদি, এরাপাল্লি প্রসন্ন ও শ্রীনিবাস ভেঙ্কটরাঘবন। চট্টগ্রামে চার স্পিনার খেলে কিংবদন্তিদের পাশে বসেছিলেন বাংলাদেশের স্পিন চতুষ্টয়।
গতকাল মিরপুরে একমাত্র দল হিসেবে দুবার টেস্টে চার স্পিনার খেলানোর রেকর্ড গড়ল বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 386 People

সম্পর্কিত পোস্ট