চট্টগ্রাম শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

৩ মে, ২০১৯ | ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বকাপ জার্সির অন্তরালের ঘটনা

টাইগারদের বিশ্বকাপ জার্সি নিয়ে গত কয়েকদিন তুলকালাম হয়ে গেছে দেশে। আগইে জানানো হয়েছে শেষ পর্যন্ত জার্সি পরিবর্তনে বাধ্য হয়েছে ক্রিকেট বোর্ড। প্রায় সকল ক্রিকটপ্রেমীরাই সোশ্যাল সাইটে অভিযোগ করেছিলেন যে, পাকিস্তানের জার্সির সাথে মিল আছে মাশরাফিদের জার্সির! বাছাই করার জন্য এবার মোট ২০টি জার্সির ডিজাইন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে জমা দেয় প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। জার্সির ডিজাইনার মেহতাব উদ্দিন আনোয়ার আহমেদ বলেন,‘আমাদের বলা হয় কোনো ইভেন্টের জন্য ডিজাইন করে দেয়ার জন্য, সেগুলো সাবমিট করি, পছন্দ না করলে আবার ডিজাইন করি, এরপর যেটা পছন্দ করে সেটা আমরা তৈরি করি। জার্সি জমা দেয়ার পরের প্রক্রিয়া সম্পর্কে আমরা অবগত না, এরপর বাকিটা বিসিবি নির্ধারণ করে ও আমাদের কাছে পাঠায়।’ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ২৯ এপ্রিল জার্সি উন্মোচনের সময় সাংবাদিকদের বলেন জার্সিটা সেখানেই প্রথম দেখেন। মঙ্গলবারের সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমি দেখতে চাইলে দেখতে পারবোনা ব্যাপারটা এমন নয়, একটা কমিটি আছে ওরা ডিজাইন দেখে বাছাই করে দিয়ে দেয়। তবে কাল আমি এটা বলার পর জানলাম আমিও দেখিনি, মাশরাফীও দেখেনি, ক্রিকেটাররাও দেখেনি। আমাদের কমিটি জার্সি নির্ধারণ করে পাঠিয়ে দেয় আইসিসিকে, আইসিসি বাংলাদেশ লেখাটা লাল থেকে সাদা করে দেয়ার কথা বলে।’ প্রবল সমালোচনার মুখে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ জার্সি পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেয় বিসিবি। সেজন্য তখন আইসিসির নিয়মের মধ্যে দিয়ে যেতে হয় বোর্ডকে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরি বলেন, ‘জার্সিতে কিন্তু শুরুতে লাল রং ছিল, আমরা বাংলাদেশ ও ক্রিকেটারের নামটা লাল রঙে লিখেছিলাম। কিন্তু আইসিসি আমাদের বলে সেটা সাদা রঙে দিতে।’ আইসিসি তাদের ফেসবুক ও টুইটারের কাভার ফটো করেছে বাংলাদেশ দলের এই ছবি দিয়ে। সব দেশকেই তাদের বিশ্বকাপ জার্সির জন্য আইসিসির অনুমোদন নিতে হয়। এবার তাই পরিবর্তনের ক্ষেত্রেও আইসিসির কাছেই আবেদন করতে হয় বিসিবিকে। ততক্ষণে এই জার্সির ছবি আইসিসি সবখানে ব্যবহার শুরু করেছে। বিকালে ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন এটিই আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন করেছে আইসিসি। মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘আমরা যখন মাঠে জার্সি উন্মোচন করতে যাই তখনই বলেছি আমি দেখিনি, এটা ক্রিকেটাররা দেখেছে হয়তো বা দেখেনি, কিন্তু যেহেতু আইসিসি অনুমোদন পেয়েছি আমরা আর এটা নিয়ে দেরি করতে চাইনা।’
জার্সি নিয়ে যা যা হলো:
হ ২৯ এপ্রিল সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জার্সি উন্মোচন করা হয়।
হ এর আগেই জার্সির কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে সেখানে অধিকাংশ মন্তব্যেই জার্সির প্রতি অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে ভক্তরা।
হ বিবিসি বাংলার ফেসবুক পাতায় জার্সি পরিহিত অবস্থায় ক্রিকেটার সাইফুদ্দিনের ছবি দিয়ে মন্তব্য চাওয়া হলে অনেকেই ‘বেস্ট অফ লাক পাকিস্তান’ লিখেছেন সেখানে।
হ এর মানে অনেকেই পাকিস্তানের জার্সির সাথে এই জার্সির মিল খুঁজে পেয়ে হতাশ হয়েছেন।
হ সবুজের আধিক্য, অনেকেই বলছেন লাল রঙ নেই কেনো, বিসিবি এওয়ে জার্সি পুরোটা লাল রঙের করেছে।
হ জার্সি পাকিস্তানের মতো বলেছেন অনেকে।
হ অনেকেই বলেছেন আয়ারল্যান্ডের মতো।
হ লাল রঙের জার্সিটিকে অনেকে বলছেন জিম্বাবুয়ের মতো।
হ জার্সিটি অনেকের চোখে সাদামাটা হয়েছে। (বিবিসি বাংলা থেকে)

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 586 People

সম্পর্কিত পোস্ট