চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

সেমির পথে বাংলাদেশই এগিয়ে, তবে...

১ জুলাই, ২০১৯ | ১:১৭ পূর্বাহ্ণ

হুমায়ুন কবির কিরণ

সেমির পথে বাংলাদেশই এগিয়ে, তবে…

বিশ্বকাপে গতকাল ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার লড়াইর দিকে নজর ছিল পুরো ক্রিকেট বিশ্বের। অবশ্য কিছুটা বেশি পাকিস্তানের, অনেকটাই আবার বাংলাদেশের। ইংল্যান্ড কি পারলো পাকিস্তানকে পয়েন্ট টেবিলের ৪ থেকে নামিয়ে দিতে, নাকিরা আরও দূরে চলে গেলো-সেটা এই মুহূর্তে সবারই জানা। তবে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ খুব করে চাইছিল গতকালের ম্যাচে ভারতের হাসি। কারণ, অস্ট্রেলিয়ার কাছে নিউজিল্যান্ডের হার যে বিশ্বকাপটাকেই জমিয়ে দিয়েছে। হারের ফলে কিউইদের পয়েন্ট এখন ১১, শেষ ম্যাচে ইংলিশদের বিরুদ্ধে জিতলে তারা শেষ চারে চলে যাবে তবে হারলে পয়েন্ট সেই ১১ই থাকবে। সেক্ষেত্রে গতকাল যদি ইংল্যান্ড জিতে থাকে তাদের পয়েন্ট এখন ১০, শেষ ম্যাচে কিউইদের হারিয়ে দিলে স্বাগতিকদের শেষ চার নিশ্চিত। আর উল্টো হলে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সামনে সুযোগ। তার মানে অবস্থা এমন দাঁড়ালো, পয়েন্ট তালিকার ৪ নম্বর স্লটটির সাথে ৩ নম্বরও এখন উন্মুক্ত। বাংলাদেশ দল যদি কাল ভারতকে হারাতে পারে এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচেও সফল হয় তাহলে পয়েন্ট দাঁড়াবে ১১। তবে ভারতের বিরুদ্ধে সফল না হলেও শেষ ম্যাচে পাকিস্তানকে হারাতে পারলে বাংলাদেশের সম্ভাবনার দূয়ার খুলে যাবে। কারণ নেট রান রেটে পাকিস্তানের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে বাংলাদেশ। তবে গতকালের ম্যাচে যদি ইংল্যান্ড জিতে থাকে তাহলে সামনের দুটি ম্যাচেই জয় প্রয়োজন হবে টাইগারদের। সাথে নজর দিতে হবে নেট রান রেটেও। কারণ শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কিউইরা হেরে গেলে তাদেরও পয়েন্ট থাকবে ১১ আর বাংলাদেশ শেষ দুটি ম্যাচ জিতে থাকলে সেই ১১, কিন্তু এখন পর্যন্ত নেট রান রেটে কিউইরা বাংলাদেশের অনেকটাই সামনে। চলতি বিশ্বকাপে আফগানিস্তান ও শ্রীলংকার পর পাকিস্তানের নেট রান রেটের অবস্থা সবচেয়ে করুণ। ৮ ম্যাচে চার জয়ে তাদের নেট রান রেট মাইনাস -০.৭৯২। পাকিস্তানের এই জয়ে সেমিফাইনালে যাওয়ার সমীকরণ সহজ হয়েছে বাংলাদেশের জন্য। ইতিমধ্যেই বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছে দক্ষিন আফ্রিকা, আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৭ ম্যাচে তিন জয় ও ১ ড্র’য়ে পয়েন্ট টেবিলের ৬ষ্ঠ স্থানে অবস্থান করছে বাংলাদেশ। টাইগারদের শেষ দুই ম্যাচের প্রতিপক্ষ ভারত ও পাকিস্তান। যদি টাইগাররা এই দুই ম্যাচেই জয় তুলে নেয় তাহলে ইংল্যান্ড তাদের দুই ম্যাচের যেকোনো একটি ম্যাচ হারলেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ। বাকি দুই ম্যাচে ইংলিশদের এক জয়ে রবীন লিগের ৯ ম্যাচ শেষে ৫ জয় নিয়ে তাদের পয়েন্ট দাড়াবে ১০। আর দুই জয়ে পয়েন্ট দাড়াবে ১২। তখন বাংলাদেশ, পাকিস্তান, শ্রীলংকা কোনো দলেরই আর সুযোগ থাকবে না সেমিফাইনালের। সে হিসেবে টাইগারদের সেমির ১ নম্বর সমীকরণ হচ্ছে ইংল্যান্ডের যেকোনো ১ ম্যাচে হার ও বাংলাদেশের শেষ দুই ম্যাচে ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়। দ্বিতীয় সমীকরণ হচ্ছে ইংল্যান্ডের শেষ দুই ম্যাচেই হার ও বাংলাদেশের পাকিস্তানের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে জয়। যদি ইংলিশরা তাদের শেষ দুই ম্যাচেই ভরাডুবির মুখ দেখে তাহলে গ্রুপ পর্বের ৯ ম্যাচ শেষে তাদের পয়েন্ট দাড়াবে ৮। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ বাকি দুই ম্যাচের একটি জয়েই ৯ পয়েন্ট নিয়ে এগিয়ে থাকবে। তবে সেই জয়টি অবশ্যই পাকিস্তানের বিপক্ষে হতে হবে। কারণ যদি বাংলাদেশ ভারতের বিপক্ষে জয় লাভ করেও পাকিস্তানের বিপক্ষে হারের মুখ দেখে তখন ৯ ম্যাচ শেষে ৫ জয় ও এক ড্র’য়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে টাইগারদের টপকে যাবে পাকিস্তান। এক অর্থে তাই পাকিস্তানের পরশুর জয়ে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের ম্যাচটি হয়ে গেছে অলিখিত সেমিফাইনাল! বাংলাদেশ যদি ভারতের বিপক্ষে আগামী ম্যাচে হারে অন্যদিকে ইংল্যান্ডও তাদের শেষ দুই ম্যাচে ভরাডুবির মুখ দেখে তখন সেমির দৌড়ে টিকে রইবে কেবল বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ই টাইগারদের নিয়ে যাবে সেমিফাইনালে। কারণ ৯ ম্যাচ শেষে তখন দুই দলের সমান সংখ্যাক ৯ পয়েন্ট হলেও নেট রান রেটে বহু ব্যবধানে এগিয়ে থেকে পাকিস্তানকে টপকে যাবে টাইগাররা। ৭ ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের বর্তমান নেট রান রেট হচ্ছে মাইনাস -০.১৩৩। যেখানে পাকিস্তানের নেট রান রাট মাইনাস -০.৭৩৩। তাই বাংলাদেশ সমর্থকদের জন্য এ্খন একটাই প্রার্থনা! ইংল্যান্ডের শেষ দুই ম্যাচে যেকোনো একটিতে হার। অন্যদিকে বাংলাদেশের শেষ দুই ম্যাচে জয়। নতুবা ইংল্যান্ডের শেষ দুই ম্যাচেই দুটি হার ও বাংলাদেশের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 170 People

সম্পর্কিত পোস্ট