চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

অন্যরকম রেকর্ডের সামনে সাকিব-মুশফিক-তামিম

১ জুলাই, ২০১৯ | ১:১৩ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

অন্যরকম রেকর্ডের সামনে সাকিব-মুশফিক-তামিম

আগামীকাল ২ জুলাই ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ গড়ালেই নতুন রেকর্ড গড়বেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের ত্রিরত্ন মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। এ ম্যাচের মধ্য দিয়ে বিশ্বকাপ ইতিহাসের কোন দলের তিন ক্রিকেটার টানা ২৮টি ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়বেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন ক্রিকেটারের অভিষেক তিন সময়ে। ত্রয়ীর মধ্যে সবার আগে অভিষেক হয়েছিল মুশফিকুর রহিমের। তারপরে সাকিব আল হাসান ও সবার শেষে তামিম ইকবালের। তবে এ তিন ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একসাথে পথচলা শুরু হয়েছিল ২০০৭ বিশ্বকাপের মধ্য দিয়ে। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে নতুন এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন তিনজনেই। সে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি ছিল ভারতকে হারানো। আর সেই ম্যাচে ফিফটি হাঁকিয়েছিলেন তাঁরা। ভারতের বিপক্ষে ওই ম্যাচে (তামিম ৫৩ বলে ৫১, মুশফিক ১০৭ বলে ৫৬ ও সাকিব ৮৬ বলে ৫৩) তিনজনই করেন ফিফটি। চলমান আসরটি ত্রয়ীর চতুর্থ বিশ্বকাপ। আর এই বিশ্বকাপে এসে নতুন রেকর্ড তৈরি করতে যাচ্ছেন তামিম-সাকিব ও মুশফিক। বিশ্বকাপ ইতিহাসের কোন দলের প্রথম কোন তিন ক্রিকেটার একটানা ২৮ ম্যাচ খেলবেন তারা। রেকর্ডটি গড়া হতো আগেই। যদি না ২০১৫ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া কিংবা ২০১৯ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটি প- না হতো। ২০০৭ বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত একটানা ২৭টি ম্যাচ খেলেছেন তিনজনে। ১৯৯৬ থেকে ২০০৭ সাল এই চার বিশ্বকাপে টানা ২৭ টি ম্যাচ খেলেছিলেন তিন লঙ্কান কিংবদন্তি জয়সুরিয়া-মুরালিধরন ও চামিন্ডা ভাস। এরপর ২০০৭ থেকে ২০১৫ এই চার বিশ্বকাপে টানা ২৭ ম্যাচ খেলেন আরেক কিংবদন্তি ত্রয়ী মাহেলা জয়বার্ধনে-কুমার সাঙ্গাকারা ও তিলকারতেœ দিলশান।
এই বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নেমেই এই দুই রেকর্ড স্পর্শ করেন বাংলাদেশের সাকিব-তামিম ও মুশফিক। এবার তাদের সামনে সুযোগ শ্রীলংকার দুই প্রজন্মের কিংবদন্তি ত্রয়ীদের ছাড়িয়ে যাওয়ার। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে একসঙ্গে তিনজন মাঠে নামলেই ছাড়িয়ে যাবেন তাদের। বিশ্বকাপে ত্রয়ী হিসেবে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড আছে অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাকগ্রা-রিকি পন্টিং ও আ্যাডাম গিলক্রিস্টের দখলে। সাকিব-তামিম-মুশফিকদের সামনে এই বিশ্বকাপেই সুযোগ থাকছে অস্ট্রেলিয়ান ত্রয়ীদের স্পর্শ করার সুযোগ। তবে এ জন্য বাংলাদেশকে খেলতে হবে ফাইনালে। বাংলাদেশ ফাইনালে পৌঁছালে ও সাকিব-তামিম-মুশফিক তিনজনই বাকি ম্যাচগুলোর সবগুলোতে একাদশে থাকলে ছুঁয়ে ফেলবেন ম্যাকগ্রা-পন্টিং ও গিলক্রিস্ট ত্রয়ীকে। বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ৩১টি ম্যাচ খেলেছিলেন গ্লেন ম্যাকগ্রা, রিকি পন্টিং ও অ্যাডাম গিলক্রিস্ট।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 297 People

সম্পর্কিত পোস্ট