চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০

৯ অক্টোবর, ২০২০ | ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

মেসির গোলে জিতল আর্জেন্টিনা

দীর্ঘ  এক বছর পর মাঠে নামার পর ছন্দপতন ছিল দুই দলের খেলোয়ারড়দের মাঝে। মাঠে মন মাতানো ফুটবল উপহার দিতে না পারলেও শেষ পর্যন্ত প্রত্যাশিত জয়ের দেখা ঠিকই পেল আর্জেন্টিনা। লিওনেল মেসির পেনাল্টি থেকে করা গোলে ইকুয়েডরকে হারানোর মধ্য দিয়ে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে শুভ সূচনা হলো আর্জেন্টিনার।

বুয়েন্স আইরেসে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার সকালে হওয়া এই খেলায় ১-০ তে জয় পায় দলটি। পূর্ণ ৩ পয়েন্ট নিয়ে বাছাই পর্ব শুরু হলো তাদের। এর মধ্য দিয়ে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ৭১ গোলের মালিক হলেন অধিনায়ক মেসি।

প্রতিক্রিয়ায় মেসি বলেছেন, জয় দিয়ে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বটা শুরু করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল, কারণ আমরা জানি, বাছাইপর্ব কতটা কঠিন।

ম্যাচের একমাত্র গোলটি এসেছে শুরুর দিকেই। একদম শুরু থেকেই বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের ওপর চাপ তৈরি করে আর্জেন্টিনা। সাফল্য মেলে ত্রয়োদশ মিনিটে। ডি-বক্সে সেভিয়া মিডফিল্ডার লুকাস ওকাম্পোসকে ডিফেন্ডার পের্ভিস এস্তুপেনার ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। জোরালো স্পট কিকে বল জালে পাঠান মেসি।

প্রথমার্ধে আর কোনো উল্লেখযোগ্য সুযোগ তৈরি করতে পারেনি আর্জেন্টিনাও। ডান দিক থেকে আক্রমণে ওঠার চেষ্টা করে গেলেও তাদের সব প্রচেষ্টা ভেস্তে যাচ্ছিল ডি-বক্সের বাইরেই। প্রতিপক্ষের সঙ্গে মেসি-মার্তিনেসদের শারীরিক শক্তিতে পেরে না ওঠা এর অন্যতম কারণ।

প্রথম ৪৫ মিনিট আর্জেন্টিনার দাপটে সেরকম কোনও সুযোগই তৈরি করতে পারেনি ইকুয়েডর। তবে বিরতিতে যাওয়ার আগমুহূর্তে রেনাতো ইবারার ফ্রি কিক বিপদ ডেকে আনতে পারতো, অবশ্য সে সুযোগ কাজে লাগেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে বড় সুযোগ পেয়েও হারান ওকাম্পোস। গোলমুখে নেওয়া শটটি ব্যর্থ করে দেন ইকুয়েডর গোলরক্ষক। ম্যাচের একদম শেষ মুহূর্তে মেসির দুর্দান্তভাবে বানিয়ে দেওয়া এক বলে শট নিয়ে গোলমুখে মারতে পারেননি দি পল।

আগামী মঙ্গলবার পরের ম্যাচে বলিভিয়ার মাঠে খেলবে সবশেষ ১৯৮৬ সালে বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পাওয়া আর্জেন্টিনা।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 109 People