চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সেঞ্চুরিয়ান আরভিনের উইকেট দিন শেষে স্বস্তি বাংলাদেশের

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৫:১২ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

সেঞ্চুরিয়ান আরভিনের উইকেট দিন শেষে স্বস্তি বাংলাদেশের

এরভিনের শেষ বেলার উইকেটটাই প্রথম দিন শেষে ম্যাচের পাল্লা কিছুটা হলেও হেলে দিয়েছে বাংলাদেশের দিকে। ২২৮ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে গতকাল শুরু হওয়া মিরপুর টেস্টের প্রথম দিন শেষ করেছে জিম্বাবুয়ে। প্রথম দিকে পেসারদের কিছু সাহায্য পাওয়ার পর উইকেট সহজ হয়ে এসেছে অনেকটা। নাঈম টার্ন আর বাউন্স পাচ্ছিলেন, তবে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা সময়টা পার করে দিচ্ছিলেন। এরভিন শুরুর অস্বস্তির পর শট খেলতে শুরু করেন। অন্য পাশে নাঈম টানা বল করে যাচ্ছিলেন, একের পর এক এক উইকেটও তুলে নিচ্ছিলেন। এরভিন সেঞ্চুরি পেলেন, এরপর ফিরলেন নাঈমের বলে। তাইজুল ছিলেন বিবর্ণ, তবে এবাদত আর রাহী মোটামুটি ঠিক জায়গায় বল করে গেছেন। প্রথম দিনটা তাই হয়েছে বাংলাদেশেরই। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে অতি-সতর্কতার সঙ্গে শুরু করেছিল জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের দুই পেসার আবু জায়েদ রাহী আর এবাদত হোসেন প্রথম ৪ ওভারই নেন মেডেন। পঞ্চম ওভারে ১ রান আসলেও সেটি ছিল ওয়াইড থেকে। ৫ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের রান ছিল বিনা

উইকেটে মাত্র ১। জিম্বাবুয়ের সেই ধৈর্যের বাঁধ শেষ পর্যন্ত ভাঙেন আবু জায়েদ রাহী। ইনিংসের অষ্টম ওভারে এসে আঘাত হানেন ডানহাতি এই পেসার। ২ রান করে গালিতে নাইম হাসানের ক্যাচ হন জিম্বাবুইয়ান ওপেনার কেভিন কাসুজা। তবে ৭ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারালেও পরে সেই ধাক্কা দারুণভাবে কাটিয়ে ওঠে জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় উইকেটে অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন আর প্রিন্স মাসভরে ১১১ রানের জুটিতে দলকে ভালো অবস্থানে পৌঁছে দেন। তারপরই জোড়া আঘাত নাইমের। বাংলাদেশি বোলারদের রীতিমত ঘাম ঝরিয়ে ছাড়ছিলেন ক্রেইগ আরভিন আর প্রিন্স মাসভরে। শুরুর ধাক্কা সামলে দ্বিতীয় উইকেটে ১১১ রানের বড় জুটি গড়ে ফেলেন তারা। কোনোকিছুতেই কিছু হচ্ছিল না, রান বাড়িয়েই যাচ্ছিলেন এই যুগল। শেষতক চোখ রাঙানো এই শতরানের জুটিটি ভাঙেন নাইম হাসান। ইনিংসের ৪৯তম ওভারে দারুণ এক ডেলিভারিতে হাফসেঞ্চুরিয়ান মাসভরেকে (৬৪) ফিরতি ক্যাচ বানান এই অফস্পিনার। পরের ওভারে এসে আবারও আঘাত। এবার নাইমকে রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে ধরা ব্রেন্ডন টেলর। কপালটা খারাপই বলতে হবে এই ব্যাটসম্যানের। বল ব্যাটে লেগে দুই তিন ড্রপে স্ট্যাম্পে গিয়ে আঘাত হানে। ১০ রান করেন টেলর। এরপর ২০ ওভারের আরও একটি জুটি ক্রেইগ আরভিন আর সিকান্দার রাজার। তারা মাত্র ২ গড়ে তুলেন ৪০ রান। শেষ পর্যন্ত এই জুটিটিও ভাঙেন নাইম, রাজাকে (১৮) উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানান তিনি। তারপরও ‘ধীরে চলো নীতি’ থেকে সরে আসেনি জিম্বাবুয়ে। পঞ্চম উইকেটে তিমিসেন মারুমাকে নিয়ে প্রায় ১০ ওভারের মতো কাটিয়ে দেন আরভিন। নতুন বল হাতে নেয়ার ঠিক আগের ওভারে মারুমাকে (৭) এলবিডব্লিউ করেন আবু জায়েদ রাহী।

আজ মিরপুর টেস্টের দ্বিতীয় দিন। দ্রুত অতিথিদের অবশিষ্ট উইকেটগুলো তুলে নিতে পারলে টাইগার উইলোবাজরা পাকিস্তান বিপর্যয়ের পর ‘টেস্ট’ ব্যাটিং পরীক্ষায় নামবেন। ভক্তদের আশা ঢাকায় তামিম ইকবাল, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিমরা পাল্টা জবাব দেবেন জিম্বাবুয়ের বোলারদের।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 90 People