চট্টগ্রাম রবিবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

১৯ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:০১ পূর্বাহ্ণ

মো. দেলোয়ার হোসেন হ চন্দনাইশ

পর্যটনের সম্ভাবনাময় স্থান ধোপাছড়ি বনাঞ্চল

পাহাড় ও নদী পরিবেষ্টিত প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ ধোপাছড়ি বনাঞ্চল। যেখানে রয়েছে কোটি কোটি টাকার বনজসম্পদ। সেখানে গেলে মনে হবে প্রকৃতি যেন তার সমস্ত সৌন্দর্য অকৃপণভাবে ঢেলে দিয়েছে।

ধোপাছড়ির পাহাড়ি এলাকায় ২ হাজার একর জায়গাজুড়ে রয়েছে সেগুন, গর্জন, গামারি, সিক্রাসি, গুটগুটিয়া, গোদা, জাম, চাপালিশসহ বিভিন্ন প্রজাতির বনজ গাছ। এখানকার চোখখানির ছড়া, চিকনছড়া, ঝিরিক্ষোপ, ডালুয়া, হরিণমারা, পরানজুরানি, গ-ামারা, ঢেউতলা, চৌকিদার ফাঁড়ি পর্যন্ত বিশাল এলাকায় সরকারিভাবে বনায়ন করা হয়। ধোপাছড়ি ও লালুটিয়া রেঞ্জ সূত্রে জানা যায়, প্রতি বছর এ সকল এলাকা থেকে কোটি কোটি টাকার গাছ বিক্রি করে সরকারি বিভিন্ন খাতে জমা করা হয়। ধোপাছড়ির বুক চিড়ে, পাশ ঘেঁষে প্রবাহিত হয়েছে খর¯্রােতা শঙ্খ নদী। শঙ্খ এতদাঞ্চলের প্রাকৃতিক নিসর্গে যোগ করেছে এক ভিন্ন মাত্রা। নদীর দুই পাশে সভ্যতার বর্ণময় শেকড়। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক দূরে হলেও পাহাড় নদীতে ঘেরা এ ধোপাছড়ি হয়ে উঠতে পারে একটি পর্যটন স্পট। প্রাকৃতিক নিসর্গের মাঝে যেখানে পাহাড়ের বুকে হেলান দিয়ে আকাশ ঘুমায়, সে ধরনের একটি কাব্যিক পরিবেশ ধোপাছড়িতে।

বিজ্ঞাপন

এককথায়, ধোপাছড়ি যেন একটি বোটানিক্যাল গার্ডেন। সরকারি বা বেসকারিভাবে যেকোন সংস্থা দায়িত্ব নিয়ে ধোপাছড়িকে পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তুললে এটিই হয়ে উঠবে বিনোদনের বিশাল কেন্দ্র। অথচ স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরও এ অনন্য সুন্দর এলাকাটির উন্নয়নে কেউ এগিয়ে আসেনি।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 178 People

সম্পর্কিত পোস্ট