চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কলমপতি খালের পুনর্খনন সেচের আওতায় আসবে ৩শ একর জমি

১ মার্চ, ২০২০ | ৩:৩৭ পূর্বাহ্ণ

জাহেদুল আলম ■ রাউজান

কলমপতি খালের পুনর্খনন সেচের আওতায় আসবে ৩শ একর জমি

রাউজান উপজেলার জলাবদ্ধতা দূরীকরণ ও সম্পূরক সেচ উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় রাউজান পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কলমপতি খালের পুনর্খনন করা হয়েছে।

সম্প্রতি এ খাল খনন কাজের উদ্বোধন করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মামনুন আহমেদ অনিক। এ সময় অতিথি ছিলেন বিএডিসির কর্মসূচি পরিচালক ও নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আশরাফুজ্জামান, প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, বিএডিসি উপজেলার উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাহেদুল ইসলাম, শওকত হোসেন, সাইফুল ইসলাম, এখতিয়ার মেম্বার, মো. আসিফ, শ্রমিক নেতা মো. ইউনুছ প্রমুখ। সংশ্লিষ্টরা জানান, এ খালটির মোট দৈর্ঘ্যরে তিন কিলোমিটার পর্যন্ত খনন করা হবে। বিএডিসির উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাহেদুল ইসলাম বলেন, এই খাল খননের ফলে এলাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণ হবে, পাহাড়ি ঢল হতে বাড়িঘর ও ফসলি জমি ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পাবে এবং প্রায় ৩শ একর জমি সেচের আওতায় আসবে।
এ প্রসঙ্গে প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, কলমপতি খাল খনন হলে আমার এলাকা ছাড়াও পাশের বিভিন্ন এলাকায় বোরো চাষের ক্ষেত্রে সেচ সুবিধা পাওয়া যাবে।

এছাড়া বন্যার সময় পাহাড়ি ঢল থেকেও বেশকিছু এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া থেকে রক্ষা পাবে। ঠিকাদার শওকত হোসেন বলেন, খালটি ভরাট হয়ে যাওয়ায় কলমপতি, ডাবুয়া, রাউজান সদরের হাজার হাজার কৃষক ও সাধারণ মানুষ কস্টে ছিল। শুষ্ক মৌসুমে পানির অভাবে চাষ হতো না। আর বর্ষা মৌসুমে পাহাড় থেকে নেমে আসা ঢলের পানির কারণে এলাকায় বন্যা দেখা দিতো। প্রায় তিন কিলোমিটার কলমপতি খাল খননের আওতায় আসায় এলাকার মানুষ আনন্দিত। এ খাল খননের কারণে কৃষকরা সবজিসহ বোরো চাষে উপকৃত হবে। বর্ষার সময় পাহাড়ি ঢলের কবল থেকে মুক্তি পাবে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 151 People

সম্পর্কিত পোস্ট