চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০

বাচ্চার সবজিতে অরুচি!

১১ মার্চ, ২০২০ | ১:৩৮ পূর্বাহ্ণ

নিগার আহমেদ

বাচ্চার সবজিতে অরুচি!

বাচ্চাদের সবজি খাওয়ানো বাবা-মায়ের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ বলা যায়। অনেকেই আবার জোর করে বাচ্চাদের সবজি খাওয়ানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু বাচ্চাদের জোর করে কিছু খাওয়ানোর চেষ্টা করলে তারা আরও বিগড়ে যায়। তাই জোর না করে পরিকল্পনা করে তাদের সবজি খাওয়ান। তার জন্য প্রয়োজন সন্তানকে সময় দেওয়া ও ধৈর্য।
বাচ্চাদের সবজি খাওয়ানোর জন্য যে পদ্ধতিগুলো অবলম্বন করতে পারেন:
জোর করে খাওয়াবেন না
সবার আগে বাচ্চাদের জোর করে সবজি খাওয়াতে চেষ্টা করবেন না। অনেকেই আছেন তাদের বাচ্চাদের সবজি খাওয়ানোর জন্য এটা সেটা দেওয়ার লোভ দেন। এটাও বন্ধ করুন। সবজি খাওয়ার বিনিময়ে খেলনা বা ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার লোভ না দিয়ে তাদের পছন্দের মিষ্টি, চকলেট বা অন্য খাবারের লোভ দিতে পারেন।
সবচেয়ে ভালো হয় সবজি খাওয়ার উপকারিতা ওদের ভাষায় বুঝিয়ে বললে। ছবিসহ শাকসবজির পরিচিতি আছে এমন বই কিনেও বাচ্চাদের সবজি চেনাতে চেনাতে ওদের উপকারিতা সম্পর্কে বলতে পারেন।
শাস্তি দেওয়া যাবে না
অনেক সময়ই জোর করে খাওয়াতে ব্যর্থ হলে আমরা বাচ্চাদের মারধোর করি, বকা দেই বা শাস্তি দেই। এটা একদমই ঠিক নয়। সবজি খাওয়ার প্রতি বাচ্চাদের ভীতি চলে আসবে। আপনার বাচ্চা যদি কিছু খেতে না চায়, জোর করে বা ভয় দেখিয়ে খাওয়াবেন না। যে সবজি সে খেতে চাচ্ছে না সেটা তখনই খাওয়াতে জোর করবেন না।
অন্য সময় অন্যভাবে চেষ্টা করুন
ঘরে বানানো পিজ্জা, বার্গার বা প্যাস্ট্রির সঙ্গেও সবজি মিশিয়ে দিতে পারেন। নানারকম সবজি মিশিয়ে ভর্তা করে মাখন বা ঘিয়ের সঙ্গে মিশিয়ে ভাতের সঙ্গে খাওয়ান। আবার সবজি মাংস বা চিজ মিশিয়ে পাকোড়া, স্যান্ডুইচ ইত্যাদির সঙ্গেও খাওয়াতে পারেন নানারকম
শাকসবজি।
খাবার হোক আনন্দময়
আপনি বাজার করলেন, রান্না করলেন তারপর আপনার বাচ্চাকে খেতে দিলেন। তখন সে খেতে না চাইলে হতাশ হয়ে পড়া স্বাভাবিক। কিন্তু এমন যদি হয়, খাবার প্লেটে আসার পুরো প্রসেসটার সঙ্গেই আপনার বাচ্চাকে পরিচয় করিয়ে দেন। তাহলে সে খাবারের ব্যপারে আগ্রহী হবে। যদি নিজেরাই সবজি চাষ করেন, সেক্ষেত্রে বাগান করার পুরো প্রক্রিয়ার সঙ্গে আপনার সন্তানকে সঙ্গি বানান। একইভাবে বাজার করা, রান্না করা এসব কাজেও তাকে সঙ্গে নিন। এতে সে খাবারের ব্যাপারে আগ্রহী হবে।

The Post Viewed By: 52 People

সম্পর্কিত পোস্ট