চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বেশি করে তওবা করুন আশুরায়

৩০ আগস্ট, ২০২০ | ২:০৩ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

বেশি করে তওবা করুন আশুরায়

আজ মহররমের ১০ তারিখ। মহররমের গুরুত্বপূর্ণ একটি ফজিলত হলো, এর সঙ্গে তওবা কবুলের ইতিহাস যুক্ত। মুসনাদে আহমাদ ও জামে তিরমিজিতে বর্ণিত এক হাদিসে আছে, এক ব্যক্তি নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট এসে জিজ্ঞেস করলো, আল্লাহর রাসূল! রমজানের পর আপনি আমাকে কোন মাসে রোজা রাখার নির্দেশ দেন? উত্তরে নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, তুমি যদি রমজানের পর আরও কোনো মাসে রোজা রাখতে চাও তাহলে মহররমে রোজা রাখো। কেননা সেটি আল্লাহর মাস। সেই মাসে এমন একটি দিন রয়েছে, যেদিন আল্লাহতায়ালা অনেকের তওবা কবুল করেছেন। ভবিষ্যতেও সেদিন আরও মানুষের তওবা কবুল করবেন। -জামে তিরমিজি: ৭৫১

এই হাদিসে যে দিনের দিকে ইশারা করা হয়েছে, খুব সম্ভব সেটি আশুরার দিন। তবে বান্দার উচিত বছরের সবদিন তওবা-ইস্তিগফারের প্রতি গুরুত্ব দেয়া। বিশেষ করে এই মাসের প্রতিটি দিনেই তওবা-ইস্তিগফারের প্রতি বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত।

ইস্তিগফারের জন্য সবচে উত্তম হলো- কোরআন-হাদিসে বর্ণিত ইস্তিগফার বিষয়ক দোয়াগুলো বুঝে বুঝে মুখস্থ করবে। সেই দোয়াগুলোর মাধ্যমে আল্লাহর দরবারে ক্ষমা প্রার্থনা করবে। তবে নিজের ভাষায় নিজের মতো করে ইস্তিগফার করলেও ঠিক আছে। কারণ আল্লাহতায়ালা সব ভাষার স্রষ্টা। তিনি সবার কথা বুঝেন, সকলের আরজি কবুল করেন।

মনে রাখতে হবে, ইস্তিগফারের প্রাণ হলো- তওবা। আর তওবার হাকিকত হলো, মানুষ আল্লাহতায়ালার নাফরমানী ছেড়ে আল্লাহর দিকে ফিরে আসবে। পেছনের অন্যায়গুলোর কাফফারা আদায় করবে। যেখানে যে কাফফারার কথা বলা হয়েছে, সেখানে তাই আদায় করবে। বিশেষ করে মানুষের কোনো হক নষ্ট হয়ে থাকলে সেগুলো আদায়ের ব্যাপারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেবে।

তবে মহররম মাস সম্পর্কে সাধারণে কিছু ভুল ধারণা রয়েছে। যেমন এই মাসে বিয়েশাদি না করা, নতুন ঘরবাড়ি নির্মাণ না করা, কোনো শুভ কাজ বা ভালো কাজের সূচনা না করা, গোশত না খাওয়া ও নিরামিষ আহার করা, পান না খাওয়া, নতুন কাপড় ও সুন্দর পোশাক পরিধান না করা, সাদা কাপড় বা কালো কাপড় তথা শোকের পোশাক পরা, সব ধরনের আনন্দ উৎসব পরিহার করা ইত্যাদি। এসবই কুসংস্কার। কোরআন ও হাদিসে এসবের কোনো ভিত্তি নেই। ইবাদত ও ইসলামি পর্বসমূহ কোরআন-সুন্নাহর ভিত্তিতে পালন করা বিধেয়, দলিল–প্রমাণহীন আমলে সুফল আশা করা যায় না। বরং এতে বহুবিধ ক্ষতির আশঙ্কা বিদ্যমান রয়েছে।
পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 129 People

সম্পর্কিত পোস্ট