চট্টগ্রাম রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কৃষি জমি সুরক্ষা ও ব্যবহারে আইন প্রণয়নের উদ্যোগ সরকারের

১ জুলাই, ২০১৯ | ৬:৩৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কৃষি জমি সুরক্ষা ও ব্যবহারে আইন প্রণয়নের উদ্যোগ সরকারের

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জানান, সরকার কৃষি জমি সুরক্ষা ও ভূমি ব্যবহারে নতুন আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। গতকাল সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি জানান, সরকার কৃষি বহির্ভূত খাতে কৃষি জমি বন্দোবস্ত দেয়া নিরুৎসাহিত করছে। সরকারি দলের সদস্য শামসুন নাহারের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, দেশের কৃষিজমি বিশেষভাবে ফসলি জমি রক্ষায় সরকারের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। ভূমি মন্ত্রণালয় কৃষিজমি সুরক্ষা ও ভূমি ব্যবহার আইন-২০১৯ এর খসড়া প্রণয়ন করেছে। যা শিগগিরই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হবে। একই দলের হাবিবুর রহমানের প্রশ্নের জবাবে ভূমিমন্ত্রী জানান, জেলা পর্যায়ে বিদ্যমান কৃষি খাসজমিগুলো কৃষি খাসজমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত নীতিমালা-১৯৯৭ এর মাধ্যমে সংশিষ্ট জেলার ভূমিহীন কৃষকদের মধ্যে স্থায়ী বন্দোবস্তের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

কৃষক ভালো মূল্য পাচ্ছেন: বিরোধী দল বিএনপি’র সংসদ সদস্য মো. হারুনুর রশীদের প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক সংসদে জানিয়েছেন, কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যের উৎপাদন খরচের চেয়ে বাজার মূল্য কম হওয়ায় কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার বিষয়টি সব ক্ষেত্রেই সঠিক নয়। মাড়াইকালীন একসঙ্গে বেশি পণ্য বাজারজাত করায় পণ্যের মূল্য কিছুটা কম থাকে।

পণ্যের মান কিছুটা কম থাকায়ও এমনটি হয়। তবে সংগ্রহের পর পরিচর্যা ও সংরক্ষণ করে মূল্য বৃদ্ধির পর বিক্রি করে অনেক কৃষক লাভবান হন। চলতি বছর আলু, শাক-সবজি ও ফল-মূল ইত্যাদির ক্ষেত্রে ভালো মূল্য পাচ্ছেন। তিনি জানান, গত ১০ বছরে ৬৯ হাজার ৬২৪ জন কৃষকের ৭৫ হাজার ৭৪০ টন শস্য সংরক্ষণের বিপরীতে ১২২ কোটি ২২ লাখ টাকা ঋণ দেয়া হয়েছে। জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মশিউর রহমান রাঙ্গার প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, কৃষিক্ষেত্রে ব্যবহৃত কীটনাশক ফসল উৎপাদনের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। তবে কীটনাশকের যথেচ্ছ ব্যবহার পরোক্ষভাবে পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য কমবেশি ক্ষতির কারণ হয়ে থাকে। কৃষিক্ষেত্রে ব্যবহৃত কীটনাশক মৎস্য সম্পদের ওপর কিছুটা হলেও বিরূপ প্রভাব ফেলে।

পূর্বকোণ/ময়মী

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 213 People

সম্পর্কিত পোস্ট