চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

২৯ এপ্রিল, ২০১৯ | ২:২৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মতবিনিময় সভায় বনমন্ত্রী শাহাব উদ্দিন

বিএফআরআই’র শূন্য পদে শীঘ্রই জনবল

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, চট্টগ্রাম বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিটিউট (বিএফআরআই) শূন্য পদে লোকবল নিয়োগে সরকার কাজ করছে। তাছাড়া এখানে যেসব সমস্যা রয়েছে তা পূরণ করা হবে। তিনি গতকাল রবিবার সকালে চট্টগ্রাম বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিটিউট (বিএফআরআই) পরিদর্শনশেষে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে মত বিনিময়কালে এসব কথা বলেন। মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল্লাহ আল মোহসিন চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব আলমগীর মুহাম্মদ মনসুর আলম, মোহাম্মদ সফিউল আলম চৌধুরী। বিএফআরআই এর পরিচালক ড. খুরশীদ আক্তার এর সভাপতিত্বে বিএফআরআই এর মুখ্য গবেষণা কর্মকর্তা ড. মো. মাসুদুর রহমান শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। এ সময় বিএফআরআইয়ের পরিচালক ড. খুরশিদ আক্তার বিএফআরআইয়ের গবেষণা কার্যক্রমের তথ্যচিত্র তুলে ধরেন। এর আগে অতিথিবৃন্দ বিএফআরআই পরিদর্শন এবং বৈলাম বৃক্ষ, মহুয়া, ধূপ, চম্পা চারা রোপণ করেন। সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেন, পরিবেশের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বেশি পরিমাণ বনজ ও ফলজ বৃক্ষরোপণ করতে হবে। সরকারের উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন ও এসডিজি কার্যকর করার লক্ষ্যে কাজ করতে হবে। বনের সুরক্ষা করতে না পারলে বাংলাদেশে বসবাস করা সম্ভব হবে না। আমি চাই এই গবেষণার মাধ্যমে বন সংরক্ষণে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। এই গবেষণাগারের সুবিধা সরকার দেখতে চায়।

তিনি বলেন, অতীতে যেসকল বৃক্ষ আমাদের পরিবেশ থেকে হারিয়ে গেছে গবেষণার মাধ্যমে তা ফিরিয়ে আনতে হবে। গাছ লাগতে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। যেকোন অনুষ্ঠানে প্রিয়জনকে গাছের চারা উপহার দিবেন।
তিনি আরো বলেন, বাঁশ দিয়ে যেসব আসবাবপত্র তৈরি হয় তা আমার জানা ছিল না। আপনারা বাঁশের যে আসবাবপত্র তৈরি করেছেন তা প্রশংসার যোগ্য। সাধারণ জনগণ জানবে বাঁশ দিয়ে উন্নতমানের আসবাবপত্র তৈরি করা সম্ভব।
সভার সভাপতি পরিচালক ড. খুরশীদ আকতার জনবল সংকটের কথা জানালে মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন নির্ধারিত ফরম্যাটে চাহিদা প্রেরণ করতে বলেন। মন্ত্রী গবেষকদের কাজে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে দেশের বনজ সম্পদ রক্ষায় আরো অবদান রাখতে বলেন।
তিনি বলেন, ‘কোন কিছু ধংস করা সহজ। তবে নতুন করে করা কঠিন। বিএফআরআই এর গবেষকগণ সেই কঠিন কাজই করে যাচ্ছেন।’
সভায় প্রতিমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বনজ সম্পদের গুরুত্ব অনেক। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে গবেষণা কর্মকা-ে আরো মনোনিবেশ করতে হবে। বর্তমান সরকার গবেষণার প্রতি জোর দিচ্ছেন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সচিব আব্দুল্লাহ আল মোহসিন চৌধুরী বলেন, ইনস্টিটিউটের গবেষণা কর্মকা-ে যেকোনো সমস্যার কথা মন্ত্রণালয়ে জানাতে বলেন এবং নতুন নতুন প্রজাতি নিয়ে গবেষণা কর্মকা- অব্যাহত রাখতে বলেন।
এর আগে অতিথিবৃন্দ বিএফআরআই পরিদর্শনকালে ঔষধি উদ্ভিদের জার্মপ্লাজম সেন্টার, বীজ বাগান বিভাগের নার্সারি, সিলবিকালচার জেনেটিক্স বিভাগের গ্রিন হাউস, প্রযুক্তি পার্ক, বাঁশের তৈরি ফার্নিচার, ব্যাম্বুসেটাম পরিদর্শন করেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 352 People

সম্পর্কিত পোস্ট