চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

২৪ নভেম্বর, ২০২০ | ৮:১৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

অশীতিপরের সাথে কিশোরীর বিয়ে: প্রতিবেদন চেয়েছে হাইকোর্ট

গ্রাম্য সালিশে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে ৮৫ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে ১২ বছরের শিশুর বিয়ে দেয়ার ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী রবিবারের (২৯ নভেম্বর) মধ্যে জামালপুরের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং দেওয়ানগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত প্রকাশিত খবর নজরে আসার পর আজ মঙ্গলবার  (২৪ নভেম্বর) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি শাহেদ নূরউদ্দিনের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত খবর নজরে আনেন।

আল মাহমুদ বাশার বলেন, বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় জামালপুরে ৮৫ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে ১২ বছরের একটি শিশুর বিয়ে দেয়ার প্রকাশিত ঘটনা নজরে নিয়ে আসছিলাম। আদালত জামালপুরের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং দেওয়ানগঞ্জের ওসিকে ঘটনাটি তদন্ত করে আগামী রবিবারের মধ্যে একটি প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সাথে আইনানুগ যেসব দায়িত্ব তাদের পালন করার কথা,  তা পালন করতে বলেছেন।

তিনি বলেন, ৮৫ বছরের বৃদ্ধকে দোররা মেরে, জোর করে গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও মাতবররা এই শিশুকে বিয়ে দেয়া সম্পূর্ণ অবৈধ। আগামী রবিবার প্রতিবেদন দেখে প্রয়োজনীয় আদেশ দিবে আদালত।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার (২০ নভেম্বর) ‘৮৫ বছরের বৃদ্ধকে দোররা মেরে ১২ বছরের শিশুর সঙ্গে বিয়ে দিলেন মাতবররা’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকে খবর ছাপা হয়। ওই খবরে বলা হয়, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জের চরআমখাওয়া ইউনিয়নের বয়রাপাড়া গ্রামে ৮৫ বছর বয়সের বৃদ্ধ মহির উদ্দিনের সঙ্গে ১২ বছরের এক শিশুর বিয়ে দিয়েছেন গ্রাম্য মাতবররা। গ্রাম্য সালিশে ওই বৃদ্ধের নাতি শাহিনের (১৮) অপরাধের দায়ভার দাদার ওপর চাপানো হয়। সালিশে বৃদ্ধ মহিরকে ১০ দোররা মেরে তার সঙ্গে শিশুটির বিয়ে দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

 

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 100 People

সম্পর্কিত পোস্ট