চট্টগ্রাম বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০

১ নভেম্বর, ২০২০ | ৭:৫৮ অপরাহ্ণ

বিজ্ঞপ্তি

মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত অস্ত্র বিক্রির প্রক্রিয়া বন্ধ করে জাদুঘরে সংরক্ষণের দাবি

মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত পুরনো অস্ত্র বিক্রি প্রক্রিয়া বন্ধ করে প্রতিটি জেলায় সরকারি উদ্যোগে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর গড়ে তুলে সযত্নে সংরক্ষণের দাবি জানিয়েছে সেক্টর কমান্ডারস্ ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ৭১ নামের একটি সংগঠন।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) সংগঠনটির যুগ্ম তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মুঈদ হাসান তড়িৎ এর সাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, একটি বাংলা দৈনিকে সম্প্রতি মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত প্রায় ২৭হাজার অস্ত্র বিক্রির খবর প্রকাশিত হয়েছে। সরকার থেকে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। খবরটি সঠিক হলে তা মুক্তিযুদ্ধসহ দেশের মুক্তিযুদ্ধ প্রেমী সকল ইতিহাস সচেতন মানুষের কাছে অত্যান্ত বেদনাদায়ক ও অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্ত বলে বিবেচিত হবে। কারণ পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে জাতীয় মুক্তিযুদ্ধে মুক্তি বাহিনীর ব্যবহার করা অস্ত্রসহ মুক্তিযুদ্ধের সকল স্বারক ও স্মৃতিচিহ্ন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অমূল্য সম্পদ এবং জাতীয় ঐতিহ্য। তাই মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত পুরনো অস্ত্রগুলো বিক্রি প্রক্রিয়া বন্ধ করে প্রতিটি জেলায় সরকারি উদ্যোগে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর গড়ে তুলে সযত্নে সংরক্ষণের দাবি জানাচ্ছি। যাতে হাজার বছর ধরে বাংলাদেশের নতুন প্রজন্ম দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয় এবং জাতির স্বাধীনতা অর্জনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে মুক্তি বাহিনীর বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা স্মরণ করার সুযোগ লাভ করে।

বিবৃতিদাতার হলেন,  সেক্টর কমান্ডারস্ ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ৭১ এর চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল কে. এম সফিউল্লাহ, কার্যকারি সভাপতি মো. নূরুল আলম, মহাসচিব মুক্তিযোদ্ধা হারুন হাবীব, সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার উল আলম, মুক্তিযোদ্ধা ম. হাবিব, যুগ্ম মহা সচিব মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ পাটোয়ারী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল এ. কে মোহাম্মদ আলী শিকদার (অব.)।

মুঈদ হাসান তড়িৎ আরও বলেন, মাতৃভূমির অনাগত যেকোন দূর্যোগে নতুন প্রজন্মই হবে নতুন যুগের মুক্তিযোদ্ধা। সে কারণে মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত কোন অস্ত্র তা যতই পুরনো বা অকেজো বলে বিবেচিত হোক না কেন কোনভাবেই তা বিক্রি পণ্য করা সঙ্গত নয়। এমন কোন সিদ্ধান্ত হয়ে থাকলে তা অবিলম্বে বাতিল করার জন্য সক্টর কমান্ডারস্ ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ৭১ এর পক্ষ থেকে আমরা জোর দাবি জানাচ্ছি।

পূর্বকোণ/ এস

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 109 People

সম্পর্কিত পোস্ট