চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

২১ অক্টোবর, ২০২০ | ১০:৫৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নোয়াখালীতে ফের দুই গৃহবধূকে ধর্ষণ-ভিডিও ধারণ, গ্রেপ্তার ৪

এবার নোয়াখালীর চাটখিলে বসতঘরে ঢুকে এক গৃহবধূকে (২৯) ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণের ঘটনা ঘটেছে। ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ আজ বুধবার (২১ অক্টোবর) ভোরে এ ঘটনার পর থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় একইদিন দুপুরে মজিবুল রহমান শরীফ (৩২) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য গৃহবধূকে নোয়াখালী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

চাটখিল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) দুলাল মিয়া জানান, বুধবার ভোর ৫টার দিকে ওই গৃহবধূ তার নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। কৌশলে শরীফ গৃহবধূর টিনশেড ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ ও ভিডিওধারণ করে পালিয়ে যায়। পরে দুপুর ৩টার দিকে নোয়াখালী ইউনিয়নের ইয়াছিন বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ধর্ষণ মামলাসহ আসামি শরীফের বিরুদ্ধে ৮টি মামলা রয়েছে। শরীফকে আটক করলেও ভিডিও ধারণ করা ফোনটি এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। ফোনটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এদিকে, একই জেলার সেনবাগের ছাতারপাইয়া ইউনিয়নে আরও এক গৃহবধূকে ধর্ষণ এবং ফোনে ভিডিও চিত্র ধারণের পর ইন্টারনেটে ভিডিও ছেড়ে দেয়ার হুমকি দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) রাতে উপজেলার পূর্ব ছাতারপাইয়া গ্রাম থেকে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হল- উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের পূর্ব ছাতারপাইয়া এলাকার শুভ (১৯), হাসান (১৯) ও রকি (২০)। পরে তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠালে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়।

সেনবাগ থানার পরিদর্শক (ওসি) আবদুল বাতেন মৃধা জানান, গত ৯ অক্টোবর রাতে বাড়ির ভেতর চাচাত দেবর ঘরে ঢুকে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। ওই গৃহবধূকে ধর্ষকের সহযোগীরা ধর্ষকের পাশে বসিয়ে মুঠোফোনে ভিডিও চিত্রধারণ করে। পরে ইন্টারনেটে ভিডিও ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে নির্যাতিতা গৃহবধূ ও তার স্বামীর কাছে ৩০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে ধর্ষকরা। পরে ভুক্তভোগী গৃহবধূ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বাদি হয়ে মামলা করেন। আসামিদের গ্রেপ্তার করে বুধবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 122 People

সম্পর্কিত পোস্ট