চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ২:৪৩ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

বাবা-মায়ের আদরে ভাগ বসানোয় ছোট বোনকে হত্যা!

বাবা-মায়ের ভালোবাসায় ছোট বোন মীম (৪) ভাগ বসাচ্ছে এমন অদ্ভুত ধারণা থেকেই ঘুমন্ত ছোট বোনকে গলা টিপে খুন করে ১৪ বছর বয়সি আল-আমিন সজীব।
বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে বানানীর জামাই বাজার কড়াইল বস্তি থেকে পুলিশ শিশু মিমের মরদেহ উদ্ধার করে।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ছায়াতদন্ত শুরু করে র‌্যাব-১। ঘটনার ১০ ঘণ্টার মধ্যেই বুধবার রাতে কড়াইল বস্তি থেকে নিহতের বড় ভাই আল আমিন সজীবকে আটক করেন র‌্যাব সদস্যরা।

তদন্তে জানা যায়, নিহতের বাবা লিটন মিয়া বনানী এলাকায় পেয়ারা ও আমড়া বিক্রি করেন এবং তার স্ত্রী রূপসানা অন্যের বাসায় কাজ করেন। তাদের দুই সন্তান— ছেলে আল আমিন সজীব (১৪) এবং মেয়ে নিহত মীম (৪)।

প্রতি দিনের মতো বুধবার সকালে লিটন ও রুপসানা বাসার বাইরে কাজে চলে যান। পরে বাসায় ফিরে মেয়েকে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন রূপসানা। সকাল ১০টায় বাসার কাছের একটি গোসলখানা থেকে মীমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতের বড় ভাইকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে এএসপি মো. কামরুজ্জামান জানান, সে স্থানীয় আইডিয়াল স্কুলের ৫ম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে। ছোট বোনের জন্মের পর থেকে তার প্রতি বাবা-মায়ের ভালোবাসা কমতে থাকে। যত দিন যায় বাবা-মা তার প্রতি উদাসীন হয়ে পড়ে এবং সব ভালোবাসা মীমের দিকে চলে যায়। তার ওপর কারণে-অকারণে চলে বাবার নির্দয় প্রহার।

যার ফলে ছোট বোনের প্রতি তার ক্ষোভ জন্মাতে থাকে এবং সব কিছুর জন্য তাকে দায়ী করতে থাকে সজীব। প্রতি দিন বাসায় ফিরে তার বাবা আদর করে ছোট বোনকে বিভিন্ন কিছু খেতে দেন। বাবা-মা দুজনই তার ছোট বোনের সব আবদার পূরণ করলেও তার বেলায় বিপরীত ঘটনা ঘটে।
ছোট বোনকে বাবা-মায়ের চোখের আড়াল করার জন্য বিভিন্ন ফন্দি আটতে থাকলেও তা কাজ করে না বিধায় বুধবার সকালে বাবা-মা বাসার বাইরে চলে গেলে ঘুমন্ত মীমকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তার লাশ পাশের গোসলখানায় রেখে আসে সজীব।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 264 People

সম্পর্কিত পোস্ট