চট্টগ্রাম সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৭:০৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

৮৩ বছর পর স্বামীর সম্পত্তিতে অধিকার ফিরে পেলেন হিন্দু বিধবা নারীরা

বাংলাদেশে হিন্দু সমাজে নারীরা উত্তরাধিকার আইনে জীবনস্বত্বে সম্পওি পায়, কিন্তু মালিকানাস্বত্ব পায় না। স্বামীর সম্পত্তিতে হিন্দু বিধবা নারীদের অধিকার নিয়ে এক ঐতিহাসিক রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। এর ফলে, ৮৩ বছর পর স্বামীর সম্পত্তিতে অধিকার ফিরে পেলেন হিন্দু বিধবা নারীরা। আজ বুধবার (২রা সেপ্টেম্বর) এ রায় ঘোষণা করেন হাইকোর্ট।

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর ) বিকালে এমন রায় প্রকাশ করে হাইকোর্ট। বাংলাদেশে হিন্দুদের উত্তরাধিকার কর্তৃক প্রণীত দায়ভাগ সিস্টেম দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। বাংলাদেশে হিন্দু উত্তরাধিকার আইনে ৫৩ জন সপি–এর মধ্যে মাত্র ৫ জন নারী (মৃতের স্ত্রী, কন্যা, মাতা, পিতামহী ও প্রপিতামহী) রয়েছেন, যারা শুধু যতদিন বেঁচে থাকবেন, ততদিন ভোগদখল করতে পারবেন উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি, তবে মালিকানার অধিকার থেকে বঞ্চিত থাকবেন।

হিন্দু আইনের সবচেয়ে কঠোর অংশ হলো মেয়েসন্তানদের মধ্যে সম্পত্তি বণ্টনের বিষয়টি। ১৯৩৭ সালে তৈরি এ আইনে বাবার সম্পদের উত্তরাধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয় মেয়েদের।দায়ভাগ আইন অনুযায়ী মৃত ব্যক্তির ছেলে থাকলে মেয়েরা সম্পত্তির ভাগ পায় না। আর যদি ছেলে না থাকে সে ক্ষেত্রে অবিবাহিত ও ছেলেসন্তান জন্মদানকারী মেয়েরা জীবনস্বত্বে সম্পত্তির অধিকার পায়। বন্ধ্যা, বিবাহিতা বা বিধবা ও মেয়েসন্তান জন্মদানকারী মেয়েরা বাবার সম্পত্তি পান না। অর্থাৎ মেয়ের অধিকার নির্ভর করে ছেলে থাকা বা না থাকার ওপর।
তবে, ২০১২ সালের আগস্ট মাসে আইন কমিশন হিন্দু নারীদের সম্পত্তির সমান ভাগ দেয়ার জন্য একটি নতুন আইনের সুপারিশ করে।

পূর্বকোণ / আরআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 306 People

সম্পর্কিত পোস্ট