চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

দেশে ফিরেই যা বললেন রায়হান কবির
আজ রাতে দেশে ফিরছেন সেই রায়হান কবির

২২ আগস্ট, ২০২০ | ৬:০৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে ফিরেই যা বললেন রায়হান কবির

প্রবাসী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আল জাজিরা টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দিয়ে আলোচিত নারায়ণগঞ্জের রায়হান কবির অবশেষে দেশে ফিরেছেন। করোনায় মালয়েশিয়ায় প্রবাসী কর্মীদের ওপর নিপীড়নের কথা জানিয়ে দেওয়া সেই সাক্ষাৎকারের জের ধরে শিক্ষার্থী রায়হানকে গ্রেপ্তার, রিমান্ড শেষে আজীবন মালয়েশিয়ান ভিসা বাতিল করে দেশে পাঠানো হয়। শুক্রবার (২১ আগস্ট) রাত পৌনে ৯টায় পরিবারের সদস্যরা জানতে পারেন রায়হান কবিরকে দেশে পাঠাচ্ছে মালয়েশিয়া সরকার। রাত ১টায় বাংলাদেশ বিমান বন্দরে এসে পৌঁছান রায়হান। এয়ারপোর্টের বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা শেষে পরিবারের সদস্যরা রাত ২টায় রায়হানকে কাছে পান। সেখান থেকে নারায়ণগঞ্জের বন্দরের শাহী মসজিদ এলাকার বাসায় পৌঁছান ভোর ৫টায়।

দেশে ফিরেই রায়হান কবির গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি একাই লড়াই করেছি এবং জিতে এসেছি, সেটা প্রমাণিত। এখন আমি আমার বাকি জীবনটা প্রবাসীদের নিয়ে কাজ করতে চাই। যদি মনে করেন আমি একা, তাহলে বলব যদি চিন্তা-চেতনা সৎ থাকে আপনি একাই যথেষ্ট। আপনিও হতে পারেন, ওয়ান ম্যান আর্মি। আগে মালয়েশিয়া জেলে আসামিদের খুব নিম্নমানের খাবার দেওয়া হতো, ১৫ জনের কক্ষে রাখা হতো ৩০-৩৫ জন। কিন্তু আমি জেলে যাওয়ার পর থেকে চার বেলা ফল ও উন্নত মানের খাবার দেওয়ার ব্যবস্থা চালু হয়েছে। আমার কক্ষে রাখা হয়েছে ১৩ জনকে। মালয়েশিয়ার জেলখানায় এমন পরিবর্তন আনতে পারায় আত্মতৃপ্ত আমি। তাই জীবনের বাকি সময়টাও এই প্রবাসী ভাইদের নিয়ে কাজ করতে চাই।‘আমি জেলে থাকা অবস্থায় রেডিওতে শুনেছি, মালয়েশিয়ার বিভিন্ন সংগঠনের অবস্থান ও কর্মসূচি জানতে পেরেছি। কিন্তু বাংলাদেশে কী হচ্ছে, সেটা জানতে পারিনি। কাল রাতে আমি যখন এয়ারপোর্টে হাজির হয়েছি, তখন অস্বস্তির কারণে মাস্ক খুলতেই একজন দৌড়ে এসে বললেন, রায়হান ভাই। কীভাবে চিনেন? প্রশ্ন করতেই উত্তর দিলেন- আপনাকে পুরো বাংলাদেশ চিনে। এরই মধ্যে শত শত বাংলাদেশি আমার পাশে এসে ভিড় করলেন, ছবি তুললেন। আমার গায়ে কুঁচকানো শার্ট দেখে একজন তার শার্ট দিয়ে দিলেন।’

রায়হান কবীর জানান, এ অভিযোগে ৮ জুলাই মালয়েশিয়া সরকার তার ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করে এবং ২৪ জুলাই তাকে গ্রেপ্তার করে ১৩ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে সেখানকার পুলিশ। আল জাজিরার সাক্ষাৎকারে মালয়েশিয়া সরকারের বিরুদ্ধে তিনি কিছুই বলেননি। শুধু প্রবাসীদের দুঃখ কষ্ট ও সমস্যার কথা তুলে ধরেছিলেন। পুলিশ একটি ভুল তথ্যের ভিত্তিতে তাকে আটক করেছিল। ফলে চার্জ গঠন করতে পারেনি। গত ৩ জুলাই মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত বাংলাদেশি অভিবাসীদের দুঃখ-দুর্দশার চিত্র তুলে ধরে আল জাজিরা টেলিভিশনে বক্তব্য দিয়ে দেশটির সরকারের রোষানলে পড়েন রায়হান কবির।

পূর্বকোণ / আরআর

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 108 People

সম্পর্কিত পোস্ট