চট্টগ্রাম রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

ট্রান্সশিপমেন্টের প্রথম চালান ত্রিপুরায় পৌঁছেছে

২৩ জুলাই, ২০২০ | ৭:৪৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ট্রান্সশিপমেন্টের প্রথম চালান ত্রিপুরায় পৌঁছেছে

বাংলাদেশের ওপর দিয়ে ত্রিপুরায় পৌঁছেছে ট্রান্সশিপমেন্ট চুক্তির আওতায় ভারতীয় পণ্যের পরীক্ষামূলক প্রথম চালান। আজ বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) প্রথম চালানে আসা টিএমটি বার ও ডালজাতীয় পণ্যের চারটি কনটেইনার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেজন্য প্রতিবেশি দেশ বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষকে নির্ধারিত হারে মাশুল ও ফি পরিশোধ করেছে।

গত মঙ্গলবার (২১ জুলাই) ভোরে বাংলাদেশি জাহাজ এমভি সেঁজুতি কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী বন্দর থেকে অন্যান্য পণ্যের সঙ্গে ট্রান্সশিপমেন্টের চালানের চারটি কনটেইনার নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে ভেড়ে। জেটিতে ভেড়ার পর কন্টেইনারগুলো খালাস করা হয়। চট্টগ্রাম থেকে চারটি ট্রেইলারে করে ২০ ফুট দৈর্ঘ্যের কন্টেইনারগুলো গতকাল বুধবার (২২ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে আখাউড়া সীমান্তের বাংলাদেশ অংশে পৌঁছায়।

বৃহস্পতিবার সকালে স্থলবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে সীমান্ত পেরিয়ে ট্রেইলারগুলো আগরতলা স্থলবন্দরে পৌঁছালে আনুষ্ঠানিকভাবে কন্টেইনারগুলো বুঝে নেন ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। এই চালানের মধ্যে ডালবোঝাই দুটি কন্টেইনার যাবে আসাম রাজ্যের গুয়াহাটির ইটিসি এগ্রো প্রসেসিং ইন্ডিয়া লিমিটেড নামের একটি কোম্পানিতে। আর টিএমটি বারবাহী দুটি কন্টেইনার যাবে আগরতলা শহরের এমএস করপোরেশন লিমিটেডের কাছে।

আখাউড়া শুল্ক স্টেশনের রজস্ব কর্মকর্তা মো. হারুনুর রশীদ বলেন, চট্টগ্রাম কাস্টম হাউজে চুক্তির আওতায় প্রথম চারটি কন্টেইনারের জন্য মাশুল এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস প্রসেসিং হয়েছে। এই চালান খালাস করে চট্টগ্রাম বন্দরের আয় হয়েছে ৩১ হাজার টাকার মতো ও শুল্ক বিভাগের আয় হয়েছে ১৩ হাজার টাকা।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সরকারি এই আয়ের বাইরে পণ্য বাংলাদেশি জাহাজে আনা এবং বাংলাদেশ ভূখণ্ডে পরিবহনের ব্যয়ও বাংলাদেশের কোম্পানি পেয়েছে। সব মিলিয়ে কন্টেইনার চারটির পরীক্ষামূলক পরিবহনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে তিন লাখ টাকার মতো থাকছে।

পণ্য পরিবহনের জন্য ভারত ও বাংলাদেশের সচিব পর্যায়ে ২০১৮ সালের অক্টোবরে দিল্লিতে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে প্রথম ভারতীয় পণ্যের পরীক্ষামূলক চালানের পরিবহনের কাজ হল। এই চুক্তির আওতায় চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর দিয়ে ভারতের উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলোতে পণ্য পরিবহন করা হবে।

 

 

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 277 People

সম্পর্কিত পোস্ট