চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০

ফাহিম হত্যাকাণ্ডে ব্যক্তিগত সহকারী গ্রেপ্তার
ফাহিমের ফ্ল্যাটে হত্যার পরদিনও ঢুকেছিল খুনি

১৮ জুলাই, ২০২০ | ১২:৩৮ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

ফাহিম হত্যাকাণ্ডে ব্যক্তিগত সহকারী গ্রেপ্তার

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বাংলাদেশি-আমেরিকান ফাহিম সালেহ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তার ব্যক্তিগত সহকারীকে আটক করেছে নিউ ইয়র্ক পুলিশ। প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে টাকার লেনদেন সংক্রান্ত কারণেই এ তরুণ প্রযুক্তিবিদকে খুন করা হয়।

শুক্রবার (১৭ জুলাই) এ খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন ও নিউ ইয়র্ক টাইমস।

পুলিশের তদন্তকারীদের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, ২১ বছর বয়সী হসপিল ফাহিমের কাছ থেকে মোটা অংকের ডলার চুরি করেছিলেন। বিষয়টি ফাহিম জেনে যাওয়ায় তাকে হত্যা করেন তার ব্যক্তিগত সহকারী।

গোয়েন্দারা হত্যার মোটিভ দেখে ধারণা করছেন, ফাহিম এ অর্থচুরির বিষয়টি জেনে যান। কিন্তু তিনি পুলিশকে না জানিয়ে বরং সহকারী হাসপিলকে অর্থ ফেরত দেওয়ার জন্য চাপ দেন। এ সংক্রান্ত কথোপকথনের কিছু প্রমাণ মিলেছে।

তদন্তকারীরা সংবাদ সম্মেলনে জানান, ফাহিমকে খুন করা হয়েছে সোমবার (১৩ জুলাই)। আর ম্যানহাটনে ২২ লাখ ডলারে কেনা তার বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্টে মরদেহ পাওয়া যায় পরদিন মঙ্গলবার (১৪ জুলাই)।

তারা আরো বলছেন, ফাহিমের ক্রেডিট কার্ড ব্যহার করেই হত্যাকারী হাসপিল হত্যার স্থান পরিষ্কার করার জন্য উপকরণ কেনেন। পরের দিন তিনি আবার অ্যাপার্টমেন্টে ফিরে মরদেহ ইলেকট্রিক করাত দিয়ে খণ্ড-বিখণ্ডে করেন এবং স্থানটি পরিষ্কার করেন।

গোয়েন্দারা বলছেন, হত্যাকারী তিন পিসের কালো স্যুট পরেন। মুখেও ছিল কালো মাস্ক। বহন করছিলেন একটি ডুফেল ব্যাগ। লিফট ও তার বিল্ডিংয়েও তিনি ফাহিমকে অনুসরণ করেন। পরে ঘরে ঢুকে তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন।

লিফটের ভিতরে থাকা ক্যামেরায় দেখা গেছে হত্যাকারী তার অবস্থানের চিহ্ন মুছতে ব্যাটারিচালিত একটি পোর্টেবল ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বিকালে ম্যানহাটানের লোয়্যার ইস্ট সাইডে ৩৩ বছর বয়সী ফাহিমের এপার্টমেন্ট থেকে তার খণ্ড-বিখণ্ড লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 119 People

সম্পর্কিত পোস্ট