চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

১৭ জুলাই, ২০২০ | ১:১৪ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

সাহেদের স্বাক্ষরিত ৪৮টি চেকসহ রিজেন্টের এমডির ভায়রা গ্রেপ্তার

আশুলিয়া থেকে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যানের মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম স্বাক্ষরিত ৪৮টি চেক বইয়ের পাতা ও বেশকিছু অফিশিয়াল সিল উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

এ সময় ওই গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ পারভেজের ভায়রা গিয়াস উদ্দীন জালালীকেও তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকার ও চালকসহ গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাইভেটকারে তল্লাশি চালিয়ে পাওয়া যায় ২ হাজার ১২০ পিস ইয়াবাসহ ১০ বোতল ফেনসিডিল।

গ্রেপ্তার হওয়া গিয়াস উদ্দীন জালালী (৬১) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানার রুপসাদী গ্রামের মৃত ফকির সুলতান জালালীর ছেলে ও রিজেন্ট গ্রুপের এমডি মাসুদ পারভেজের ভায়রা এবং প্রাইভেটকার চালক মাহমুদুল হাসান (৪০) শরিয়তপুর জেলার জাজিরা থানার ছোট কৃষ্টনগরের ফয়জুল মাতবরের ছেলে। 

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচাল লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ জানান, রিজেন্ট প্রতারণা কাণ্ডে অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালানো হয় আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকায়।

র‌্যাব-১’র একটি দল নরসিংহপুর এলাকায় আশুলিয়া-কাশিমপুর সড়কে অভিযান চালিয়ে গিয়াস উদ্দীনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

দেশজুড়ে বহুল আলোচিত রিজেন্টের ‘মহাপ্রতারণা’ কাণ্ডে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার হয়ে পুলিশের হেফাজতে আছেন রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ পারভেজ।

র‌্যাব জানায়, তাদের কাছ থেকে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যানের সিল ও স্বাক্ষরিত প্রিমিয়ার ব্যাংক, গরিবে নেওয়াজ এভিনিও শাখার ৪৮টি চেক বইয়ের পাতা ও রিদম ট্রেডিংয়ের নামে ডাচ বাংলা ব্যাংক প্রগতি স্মরনী শাখার একটি চেক বই পাওয়া যায়। এ ছাড়া তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকার তল্লাশি করে ১০ বোতল ফেন্সিডিল ও ২ হাজার ১২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেছে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 224 People

সম্পর্কিত পোস্ট