চট্টগ্রাম বুধবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২০

২৫ জুন, ২০২০ | ৪:৪০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বাস্থ্যবিধির অজুহাতে লঞ্চের ভাড়া বৃদ্ধি বন্ধের দাবি যাত্রী কল্যাণ সমিতির

করোনা মহামারীর এই দুর্যোগে বিপর্যস্ত জনগণের উপর লঞ্চের ভাড়া বৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী এই দাবি জানান।

মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, দীর্ঘ সাধারণ ছুটি ও সীমিত আকারে জরুরী সেবাদানকারী অফিস খোলা রাখায় করোনা মহামারীতে কর্মহারিয়ে নিদারুণ আর্থিক সঙ্কটে থাকা জনগনের উপর বর্ধিত লঞ্চ ভাড়া চাপিয়ে দেয়া হলে “মরার উপর খাড়ার গাঁ” এ পরিণত হবে যা দরিদ্র-পিড়িত জনগণের উপর এই মহাসঙ্কটে জুলুমের শামিল হবে।

বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, যেকোন সঙ্কটে বা অজুহাতে দেশে গণপরিবহনের ভাড়া বাড়ালে তা স্বাভাবিক সময়েও কমানোর সক্ষমতা সরকারের নেই। দেশের ইতিহাসে দীর্ঘ ছুটিতে থাকা ও সীমিত আকারে জরুরী সেবাদানকারী অফিস খোলা রাখায় করোনা মহামারীতে কর্মহারিয়ে সাধারণ মানুষজন এখন এক ভয়াবহ আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে আছে। জনগনের জীবন-জীবিকা আজ ভয়াবহ অনিশ্চয়তার মধ্যে দণ্ডায়মান। যেকারণে মানুষ শহর ছেড়ে গ্রামে ছুটছে। ইতোমধ্যে বাসের ভাড়া এক লাফে ৬০ শতাংশ বৃদ্ধির ফলে গণপরিবহনগুলো চরম যাত্রী সঙ্কটে পড়েছে। লঞ্চে এখনও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে প্রায় প্রতিটি রুটে গাদাগাদি করে যাত্রী বহন অব্যাহত রয়েছে। পৃথিবীর ২০৫টি দেশ ও অঞ্চলে করোনার ভয়াল থাবায় বিপর্যস্ত হলেও কোন দেশে গণপরিবহনের ভাড়া বাড়ানো নজির নেই। তাই স্বাস্থ্যবিধির অজুহাতে লঞ্চের ভাড়া বৃদ্ধির পায়তারা জরুরী ভিত্তিতে বন্ধের দাবী জানান তিনি। একই সাথে এই সঙ্কটকালে লঞ্চ ও ফেরিঘাটে টোল-ইজারা বন্ধ রাখার দাবি জানান ও তিনি।

এছাড়া, করোনা সঙ্কটকালে গণপরিবহনের জন্য জ্বালানী তেল আমদানী মূল্যে সরবরাহ করে লঞ্চের ভাড়া বৃদ্ধির পায়তারা বন্ধের পাশাপাশি বাসের বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহার করে রাষ্ট্র ও সরকারকে দুর্যোগ কবলিত বিপর্যস্ত সাধারণ জনগণের পাশে দাড়াঁনোরও অনুরোধ জানান তিনি।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 155 People

সম্পর্কিত পোস্ট