চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০

সরকারের প্রতিশ্রুতি কেতাবেই থাকছে, গোয়ালে নেই: রিজভী

১৯ জুন, ২০২০ | ৩:৪৩ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

সরকারের প্রতিশ্রুতি কেতাবেই থাকছে, গোয়ালে নেই: রিজভী

আওয়ামী লীগ সরকারের বারবার একইরকম প্রতিশ্রুতি ‘কাজীর গরু কেতাবেই থাকছে, গোয়ালে নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ শুক্রবার (১৯ জুন) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক ভিডিও কনফারেন্সে তিনি এসব কথা বলেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ২০১৪ সালের ২৩ নভেম্বর রবিবার দেশের তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মরহুম মোহাম্মদ নাসিম জাতীয় সংসদে বলেছিলেন, চলতি মাসেই অর্থাৎ ২০১৪ সালের নভেম্বর মাস থেকেই জেলা পর্যায়ের সরকারি হাসপাতালগুলোতে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) ও হৃদরোগীদের জন্য বিশেষ পরিচর্যা কেন্দ্র (সিসিইউ) এর কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। মোহাম্মদ নাসিমের প্রতিশ্রুতির ঠিক ছয় বছর পর ২০২০ সালে এসেও আওয়ামী সরকারের মুখে সেই একই কথা। একই প্রতিশ্রুতি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৮ এপ্রিল শনিবার জাতীয় সংসদে বলেছেন, “প্রতিটি জেলা হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপন করা হবে।” আওয়ামী সরকারের বারবার একইরকম প্রতিশ্রুতি “কাজীর গরু কেতাবেই থাকছে, গোয়ালে নেই”-এর মতো।’

তিন বলেন, ‘করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাটছে মানুষের দিন। মানুষ বিপর্যস্ত ও আতঙ্কিত। করোনা ভীতিতে আচ্ছন্ন দেশের জনগণ। মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে প্রতিদিন। দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার বেহাল অবস্থায় জনমনে আতঙ্ক ও উদ্বেগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা একেবারেই ভেঙে পড়েছে। হাসপাতালগুলোতে ভেন্টিলেটর, আইসিইউ ও করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা সারা বিশ্বের মধ্যে সর্বনিম্ন। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পেতে ১৫ দিন পর্যন্ত সময় লাগছে। ল্যাবে নমুনার স্তুপ জমা হয়ে আছে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতের বর্তমান দুর্দশায় প্রমাণিত হয়েছে, এই সরকার জনগণের সঙ্গে বছরের পর বছর ধরে ধাপ্পাবাজী করেছে।’

‘রিজভী বলেন, এই করোনার প্রকোপের মধ্যেও দুর্নীতির সংবাদ আড়াল করার জন্য প্রায় প্রতিদিনই গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের ডেকেনিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকেরা ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হয়রানি করছে।

‘কেউ আওয়ামী লীগের ব্যর্থতা আর দুর্নীতির কথা মনে করিয়ে দিলে তাকে তাড়াহুড়ো করে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। রাতের অন্ধকারে তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় মন্তব্য করার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। একজনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।’ 

তিনি বলেন, ‘এই শিক্ষকরা স্বাস্থ্যখাতের যে লুটপাটের কথা, যে ব্যর্থতার কথা এবং সত্যগুলো প্রকাশ করেছেন তা আজ হাটে-ঘাটে মানুষের মুখে মুখে। বাস্তবতা মানুষকে প্রতিবাদী করে তুলছে। কি ভয়াবহ বিপদজনক পরিস্থিতি দেশে তৈরি হয়েছে যে, মানুষ স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারছে না।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 142 People

সম্পর্কিত পোস্ট