চট্টগ্রাম শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০

মাসুদ রানা’র লেখকের আসল রহস্য ফাঁস!
মাসুদ রানা’র লেখকের আসল রহস্য ফাঁস!

১৬ জুন, ২০২০ | ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মাসুদ রানা’র লেখকের আসল রহস্য ফাঁস!

বাংলাদেশের তুমুল জনপ্রিয় সেবা প্রকাশনীর থ্রিলার ক্রেজ ‘মাসুদ রানা’ সিরিজটি পড়েননি এমন কিশোর কিংবা তরুণ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। ‍এই সিরিজটি যারা একবার হলেও পড়েছেন তারা জানেন প্রতিটি কপিতেই কাজী আনোয়ার হোসেন নামে একটা কমন নাম লেখা থাকে। অনেকেই ভাবেন, এসব লিখতে গিয়ে তিনি কি সারাদিন নাওয়া খাওয়া ভুলে যান? আর তাই অনেকেই মাসুদ রানা সিরিজের লেখকের সঙ্গে কথা বলার লোভ সামলাতে না পেরে চিঠি লেখেন লেখক বরাবর।

তবে যারা এমন ভাবনা নিয়ে এতোদিন ছিলেন তাদের জন্য হতবাক হওয়ার মতো একটি তথ্য আছে। সেটা হলো- কাজী আনোয়ার হোসেন তুমুল জনপ্রিয় সিরিজ মাসুদ রানা সিরিজের স্রষ্টা হলেও বেশিরভাগ পর্বের লেখক তিনি নন। মাসুদ রানা সিরিজটির প্রথম ১১টি বইয়ের পর শেখ আব্দুল হাকিম ২৬০ পর্ব পর্যন্ত লিখেছেন। বাংলাদেশ কপিরাইট কার্যালয় এমন রায় দিয়েছে।

গত রবিবার (১৪ জুন) এই রায় ঘোষণা করে বলা হয়, শেখ আব্দুল হাকিম সেবা প্রকাশনীর তুমুল জনপ্রিয় এই সিরিজটি প্রথম ১১টি বইয়ের পর ২৬০ পর্ব পর্যন্ত লিখেছেন। এখন রায় মোতাবেক দাবিকৃত মাসুদ রানা সিরিজের ২৬০টি এবং কুয়াশা সিরিজের ৫০টি বইয়ের লেখক হিসেবে কপিরাইট স্বত্ব পেতে যাচ্ছেন শেখ আবদুল হাকিম।

২০১৯ সালের ২৯ জুলাই শেখ আবদুল হাকিম কপিরাইট স্বত্ব দাবি করে মামলাটি দায়ের করেছিলেন। তবে তার সাথে জুড়ে কপিরাইট আইনে মামলা করেছেন মাসুদ রানার আরেক লেখক ইফতেখার আমিনও। মাসুদ রানার স্বত্ব দাবি করেছেন তিনিও। তবে তার মামলা এখনও চলমান।

‘মাসুদ রানা’ ধ্বংস পাহাড় দিয়ে শুরু হওয়া এই সিরিজের প্রকাশিত হয়েছে ৪৬০টির মতো বই। এর মধ্যে ২৬০টি শেখ আবদুল হাকিম লিখলেও তার নামে স্বত্ব রয়েছে মাত্র একটি বই। অন্যদিকে কুয়াশা সিরিজের ৫০টি বইয়ের লেখক বলেও কপিরাইট আইন মামলায় জিতেছেন তিনি। তবে সিরিজের মাত্র ৬টি বইয়ে তার নামে স্বত্ব আছে।

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

The Post Viewed By: 223 People

সম্পর্কিত পোস্ট