চট্টগ্রাম রবিবার, ১২ জুলাই, ২০২০

সর্বশেষ:

পঙ্গপাল বাংলাদেশে আসার সম্ভাবনা নেই: এফএও
পঙ্গপাল বাংলাদেশে আসার সম্ভাবনা নেই: এফএও

২ জুন, ২০২০ | ৩:০০ অপরাহ্ণ

পঙ্গপাল বাংলাদেশে আসার সম্ভাবনা নেই: এফএও

বাংলাদেশের মানুষদের পঙ্গপাল নিয়ে চিন্তার কোন কারণ নেই বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা(এফএও)।মৌসুমী বায়ু অনুকূলে থাকবে না বলে এ বছর বাংলাদেশে পঙ্গপাল আসার  কোন সম্ভাবনা থাকছে না বলে জানিয়েছেন এ সংস্থাটি।

উল্লেখ্য, গত বছরের শেষ দিক থেকে আফ্রিকার ইথিওপিয়া, কেনিয়া ও সোমালিয়াসহ কয়েকটি দেশে আক্রমণ চালিয়ে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে পঙ্গপাল। এ বছরের শুরুতে পাকিস্তানে পঙ্গপালের আক্রমণে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির খবর জানা যায়। এবছর এটি আফ্রিকার কয়েকটি দেশে আক্রমণ চালানোর পর সর্বশেষ মে এর শেষের দিকে  হানা দেয় ভারতে।

গত ২৭ মে প্রকাশিত খাদ্য ও কৃষি সংস্থার  সর্বশেষ প্রতিবেদনে জানা যায়, ভারতের রাজস্থান থেকে পঙ্গপালের ঝাঁক মধ্যপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্রে যেতে থাকবে। আরো কয়েকটি ঝাঁক রাজস্থানে ঢুকতে পারে জুলাই পর্যন্ত। এরা বাতাস অনুকূলে পেয়ে বিহার ও উড়িশ্যাতেও পৌঁছে যেতে পারে। এরপর মৌসুমি বায়ূ দিক বদলাতে শুরু করলে এরাও রাজস্থানের দিকে ফিরে আসবে। ওই সময় তাদের প্রজননের সময় হবে এবং চলাচল থেমে যাবে। ফলে দক্ষিণ ভারত, নেপাল ও বাংলাদেশের দিকে যাওয়ার সম্ভাবনা পঙ্গপালের খুব একটা নেই।

উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের মতে, পঙ্গপাল শুষ্ক আবহাওয়া পছন্দ করে। এদেশের আবহাওয়া আর্দ্র ও শুষ্ক। তাই এ দেশে পঙ্গপালের আক্রমণের সম্ভাবনা কম। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরেরে এক কর্মকর্তা বলেন, বিগত ৪৯ বছরে দেশে পঙ্গপালের কোন আক্রমণ হয়নি। কৃষি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আমাদের সতর্ক এবং প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। তবে এ বছর তেমন ঝুঁকি নাই, আগামী বছরের জন্য আমাদের সতর্ক হতে হবে।

  

এদিকে, বাংলাদেশের কৃষি উন্নয়ন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ গত মাসের শুরুতে এফএও’র পঙ্গপাল পূর্বাভাস বিষয়ক সিনিয়র কর্মকর্তা কিথ ক্রেসম্যানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

বাংলাদেশে পঙ্গপাল আসার সম্ভাবনা কতটুকু এ বিষয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘কয়েকটি কারণেই বাংলাদেশে পঙ্গপাল হানা দেয়ার সম্ভাবনা নেই।প্রথমত, বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে আছে পঙ্গপাল। দ্বিতীয়ত, তারা বাতাসের বিপরীতে উড়তে পারে না। তৃতীয়ত, বাংলাদেশ অনেক আর্দ্র ও সবুজ, মরু পঙ্গপালের বসবাসের জন্য এ আবহাওয়া অনুকূলে নয়।’

মরু পঙ্গপালের একটি ঝাঁকের বিস্তার কয়েকশ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে। একটি প্রাপ্তবয়স্ক পঙ্গপাল নিজের ওজনের সমান (২ গ্রাম) শস্য একদিনে খেয়ে শেষ করতে পারে। এক বর্গ কিলোমিটার এলাকাব্যাপী পঙ্গপাল যে পরিমাণ ফসল নষ্ট করে, তা দিয়ে ৩৫ হাজার মানুষকে এক বছর খাওয়ানো যায়।

পূর্বকোণ/ এএ 

 

The Post Viewed By: 170 People

সম্পর্কিত পোস্ট