চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশি নারীর লাশ উদ্ধার, ঢাকায় আসামি গ্রেপ্তার
লালখান বাজারে পানির ট্যাংকে মিলল শিশুর লাশ

৩১ মে, ২০২০ | ৯:৩০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশি নারীর লাশ উদ্ধার, ঢাকায় আসামি গ্রেপ্তার

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একটি লজে বাংলাদেশি এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রাজ্যের বনগাঁ থানা এলাকা থেকে আসমা ইসলাম (৪০) নামে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি যশোর শহরের পুরোনো কসবা এলাকার বাসিন্দা।

এই ঘটনায় মামলার একমাত্র আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতের নাম আবুল কাসেম ওরফে কাসেম মিয়া। ঢাকার মিরপুর থেকে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় গতকাল শনিবার (৩০ মে) রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে যশোর ডিবি পুলিশ। গ্রেপ্তারের সময় কাসেমের পাসপোর্ট, ব্যবহৃত দুটি মুঠোফোন ও তাঁর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আসমা ইসলামের মুঠোফোনটি ঢাকার মানিকনগর এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। আজ রবিবার (৩১ মে) আদালতের মাধ্যমে তাঁকে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারিতে কলকাতায় বেড়াতে যান আসমা ইসলাম। পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ থানা এলাকার শ্যামা প্রসাদ লজ নামে একটি আবাসিক হোটেলে উঠেন। ওই হোটেলে পাশের একটি কক্ষে উঠেন আবুল কাসেম। পরদিন ১৬ জানুয়ারি কাসেমের কক্ষ থেকেই আসমার লাশ উদ্ধার করে বনগাঁ থানা পুলিশ।

ডিবি পুলিশ জানায়, বনগাঁ পুলিশ এ ঘটনায় বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা করে। খবর পেয়ে আসমার পরিবারের স্বজনেরা ভারতে গিয়ে বনগাঁ থানা থেকে মামলার কাগজপত্র সংগ্রহ করে যশোরের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগটি এফআইআর হিসেবে গ্রহণ করার জন্য কোতোয়ালী থানাকে নির্দেশ দেন আদালত।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, আসমার সঙ্গে তাঁর স্বামীর ছাড়াছাড়ি হয়েছে। ওই স্বামীর ঘরে তাঁর তিন সন্তান রয়েছে। এদিকে কাসেমেরও একাধিক স্ত্রী রয়েছে। পরে আসমা ও কাশেমের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর মধ্যে আসমা কৌশলে কাসেমের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়েও ওই টাকা আর ফেরত দেননি। এদিকে আসমা আবার আগের স্বামীর কাছে ফিরে যেতে চাইলে তাঁদের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এসব কারণেই কাসেম আসমাকে হত্যা করতে পারে।

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 223 People

সম্পর্কিত পোস্ট