চট্টগ্রাম রবিবার, ০৭ জুন, ২০২০

শিক্ষার্থীর ভরসা ‘সংসদ টিভি’

২০ এপ্রিল, ২০২০ | ৪:৩০ পূর্বাহ্ণ

ইমরান বিন ছবুর

শিক্ষার্থী, অভিভাবকরা সন্তুষ্ট।

শিক্ষার্থীর ভরসা ‘সংসদ টিভি’

‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা ­ পর্যন্ত মন্ত্রণালয় টেলিভিশনে ক্লাস ­ চালিয়ে নেওয়ার কথা ভাবছে’

করোনায় স্কুলবন্ধ

আবিদ রহমান। চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। করোনাভাইরাসের কারণে গত এক মাসের বেশি সময় ধরে স্কুল বন্ধ। না যেতে পারছে কোচিং সেন্টারে, আর না বাসায় আসতে পারছে হোম টিউটর। তাই এ লম্বা ছুটিতে পড়াশুনার একমাত্র ভরসা সংসদ টেলিভিশন চ্যানেল (সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন)। ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ শিরোনামে গত ২৯ মার্চ থেকে মাধ্যমিক এবং ‘ঘরে বসে শিখি’ শিরোনামে ৭ এপ্রিল থেকে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের জন্য ক্লাস শুরু হয়। প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের এখন একমাত্র ভরসা সংসদ টিভি। এসব ক্লাসে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরাও সন্তুষ্ট বলে জানা যায়। এছাড়া, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা আসার পর থেকেই চট্টগ্রামের ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলগুলো অনলাইনে তাদের পাঠ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা যায়।
সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশও করোনাভাইরাসের ছোবলে আক্রান্ত। আর এ বিষাক্ত ছোবল থেকে দেশকে রক্ষা করতে গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। প্রথম ধাপে এ বন্ধ ৩১ মার্চ পর্যন্ত রাখার কথা থাকলেও, পরে একে একে বাড়িয়ে তা ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত করা হয়। তবে ঈদ পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কথা ভাবছেন সংশ্লিষ্টরা।
চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল এন্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ওমকার দাশ ওম বলেছে, বর্তমানে ঘরে বসে সংসদ টিভিতে পড়ালেখা করে আমি খুব আনন্দিত। সেখানে নানান বিষয়ে পাঠদান দেয়। গণিত ও ইংরেজির কিছু কঠিন বিষয় যেগুলোর সমাধান ঘরে করতে পারতাম না। সেগুলো টিভিতে দেখে সহজে সমাধান করতে পারছি। সেখানে বাংলা, বিজ্ঞান, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, ইংরেজি, গণিত, আইসিটি পড়ায়। আমার অন্য বন্ধুরাও এই টিভি দেখে অনেক কিছু শিখছে বলে ফোনে জানিয়েছে। এই উদ্যোগ গ্রহণ করায় শিক্ষামন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে এই ছাত্রের মা আঁখি নন্দী বলেন, বারবার ছুটি ঘোষণা করে যখন স্কুল বন্ধ থাকার দিন বাড়ছিল তখন ভাবছিলাম পড়ালেখায় হয়তো সে পিছিয়ে যাবে। যেহেতু এখন বাসায়ও কোনো প্রাইভেট শিক্ষক আসছে না। কিন্তু এই অনুষ্ঠান চালু হওয়ার পর সেই শংকা দূর হয়েছে।
ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির খ শাখার শ্রেণি শিক্ষক মো. মনজুরুল ইসলাম জানান, সংসদ টিভির ক্লাস সম্পর্কে অনেক অভিভাবক তাদের মতামত আমাদের ফোনে জানিয়েছেন। এই বন্ধের দিনে ক্লাসগুলো শিক্ষার্থীদের অনেক উপকারে আসবে। অনেক অভিভাবক ও শিক্ষার্থী ক্লাসের সময়সূচি জানতে চেয়েছেন, আমরা তাদের সময়সূচি জানিয়ে দিয়েছি।
জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, সংসদ টেলিভিশনের ক্লাসগুলো সম্পর্কে যতটুকু সম্ভব আমরা শিক্ষকদের মাধ্যমে অভিভাবকদের জানিয়েছি। প্রতি সাতদিন পর পর রুটিন প্রকাশ করা হয়। এতে করে শিক্ষার্থীরা তাদের পড়াশুনা অনেকখানি এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যতদিন বন্ধ থাকে, সংসদ টেলিভিশনের ক্লাস ততদিন চলবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষা অফিসার বলেন, টেলিভিশনের ক্লাস কতদিন চলে তা আমরা নিশ্চিত না। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা পর্যন্ত মন্ত্রণালয় টেলিভিশনে ক্লাস চালিয়ে নেওয়ার কথা ভাবছে বলে জানান তিনি।

The Post Viewed By: 195 People

সম্পর্কিত পোস্ট