চট্টগ্রাম সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আজ চৈত্রসংক্রান্তি কাল পহেলা বৈশাখ

১৩ এপ্রিল, ২০২০ | ৬:৪৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

আজ চৈত্রসংক্রান্তি কাল পহেলা বৈশাখ

আজ চৈত্রসংক্রান্তির মাধ্যমে আজ ১৪২৬ সনকে বিদায় জানাচ্ছে বাঙালি । আগামীকাল পহেল বৈশাখ । বাংলা নবর্বষের ১৪২৭ সালের প্রথম দিন। বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল বাঙালি  মহামারি করোনাভাইরাস থেকে সহসা মুক্তির প্রত্যাশা নিয়েই কাল প্রথমবারের মতো তেমন কোন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াইবরণ করে নেবে নতুন বছরকে ।

করোনায় নববর্ষে জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা :

যদিও আগেই করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে পহেলা বৈশাখের জনসমাগমের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। সারাদেশে গত ২৬ মার্চ থেকে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে সাধারণ ছুটি। এবার তাই কোন রকম আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই নতুন বর্ষকে বরণ করে নেয়া হবে। ঐতিহ্যবাহী রমনার বটমূলে হচ্ছেনা ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। তবে সরকারি এবং বেসরকারি টেলিভিশন ও বেতারে নববর্ষের বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করা হবে।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী পৃথক বাণীতে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন:

এদিকে আগমীকাল বাংলা নববর্ষের দিন সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির বা উপাসনালয়ে না গিয়ে নিজ-নিজ গৃহে অবস্থান করে আনুষ্ঠানিকতা পালনের আহবান জানানো হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট মহামারি পরিস্থিতি বিবেচনাকরে সরকারের নির্দেশ অনুয়ায়ী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রতি এ অনুরোধ জানানো হয়।বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণীতে দেশবাসীসহ বাঙালিদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাবেন।

বাংলা নববর্ষ শুরুর কথা:

কৃষিকাজ ও খাজনা আদায়ের সুবিধার জন্য বাংলা সন গণনার শুরু মোঘল সম্রাট আকবরের সময়ে। হিজরি চান্দ্রসন ও বাংলা সৌর সনের ওপর ভিত্তি করে প্রবর্তিত হয় নতুন এই বাংলা সন। ১৫৫৬ সালে কার্যকর হওয়া বাংলা সন প্রথমদিকে পরিচিত ছিল ফসলি সন নামে, পরে তা পরিচিত হয় বঙ্গাব্দ নামে। কৃষিভিত্তিক গ্রামীণ সমাজের সঙ্গে বাংলাবর্ষের ইতিহাস জড়িয়ে থাকলেও এর সঙ্গে রাজনৈতিক ইতিহাসেরও সংযোগ ঘটেছে। পাকিস্তান শাসনামলে বাঙালি জাতীয়তাবাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয় বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের। আর ষাটের দশকের শেষে তা বিশেষ মাত্রা পায় রমনা বটমূলে ছায়ানটের আয়োজনের মাধ্যমে।

মঙ্গল শোভাযাত্রার শুরুর কথা:

১৯৮৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে বের হয় প্রথম মঙ্গল শোভাযাত্রা। যা ২০১৬ সালের ৩০ নভেম্বর ইউনেস্কো এ শোভাযাত্রাকে বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের মর্যাদা দেয়। বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে নববর্ষ উদযাপন পরিণত হয়েছে বাংলাদেশের সার্বজনীন উৎসবে। পহেলা বৈশাখের ভোরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে-সঙ্গে নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর আয়োজনে মেতে ওঠে সারাদেশ।

পূর্বকোণ-আরপি/*

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 329 People

সম্পর্কিত পোস্ট