চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

খুলনা ও বরিশালে আইসোলেশনে দু’জনের মৃত্যু

২৯ মার্চ, ২০২০ | ৯:৪৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

খুলনা ও বরিশালে আইসোলেশনে দু’জনের মৃত্যু

খুলনা ও বরিশালে আলাদা করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বরিশালে আইসোলেশন ইউনিটে নেয়ার আগে মারা গেছেন এক নারী। খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতাল ও বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আজ রবিবার (২৯ মার্চ) সকালে তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

খুমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ইনচার্জ ডা. শৈলেন্দ্র নাথ বিশ্বাস বলেন, ৭০ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে শুক্রবার হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছিল। তার বাড়ি নড়াইলের কালিয়া উপজেলায়। করোনা ইউনিটে ভর্তি থাকলেও তিনি আক্রান্ত ছিলেন যক্ষ্মা রোগে। বিষয়টি সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআর-কে জানানো হয়েছে। আইইডিসিআর বলেছে ওই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। তাই মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

করোনার উপসর্গ নিয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন ৪০ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। সন্দেহ করা হচ্ছে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে গতকাল সন্ধ্যায় তাকে বরিশালে নেয়া হয়।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন বলেন, তিনি জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে নেয়ার আগে চার দিন তিনি পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন বলেও জানান তিনি।

ডা. বাকির হোসেন আরও বলেন, হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে নেয়ার আগে আজ সকালে ৪৫ বছর বয়সী এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে তিনি বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হলে তিনি ছাড়পত্র পান। পরে তিনি জ্বর ও শ্বাসজনিত সমস্যা নিয়ে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আসেন। জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তির পরামর্শ দেন। আইসোলেশন ইউনিটে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 99 People

সম্পর্কিত পোস্ট