চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কুষ্টিয়ার সহস্রাধিক চালকল গোয়েন্দা নজরদারিতে

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ১১:৩৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুষ্টিয়ার সহস্রাধিক চালকল গোয়েন্দা নজরদারিতে

এক সপ্তাহের ব্যবধানে কুষ্টিয়ায় আবারও বেড়েছে চালের দাম। কুষ্টিয়ায় চালের দামের ওপর নির্ভর করে গোটা বাংলাদেশের চালের দাম। কোনো যৌক্তিক কারণ ছাড়া চালের দাম দফায় দফায় বৃদ্ধি পাওয়ায় জরুরি বৈঠকে বসেছে প্রশাসন।

কুষ্টিয়ার চাল কল মালিক সমিতি ও চেম্বার অব কমার্সের সঙ্গে বৈঠক করেছে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার। কালোবাজারির কারণে যেন চালের দাম বৃদ্ধি না হয় সে বিষয়ে হুঁশিয়ার করে দেওয়া হয়েছে মিল মালিকদের।

খাদ্য বিভাগের তালিকা অনুযায়ী কুষ্টিয়া জেলায় ৩৩টি অটো রাইস মিলসহ ছোট-বড় মিলে ৬৩০টি রাইস মিল রয়েছে। এ ছাড়া ধান সিদ্ধ-শুকানোসহ প্রক্রিয়াজাতকরণের চাতাল আছে সহস্রাধিক। এসব উৎপাদনশীল প্রতিষ্ঠানে গোয়েন্দা নজরদারি শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। পুলিশের বিশেষ শাখা ও সাদা পোশাকে পুলিশ মিলগুলোতে নজরদারি রাখছে।

মিনিকেট চালের সবচেয়ে বড় মোকাম কুষ্টিয়া। গত ৭ দিনে কুষ্টিয়ার মোকামে সরু চাল হিসেবে পরিচিত মিনিকেট চালের দাম কেজিতে বেড়েছে ৪ টাকা। আর অন্যান্য চালের দাম বেড়েছে ২ থেকে ৩ টাকা। এ নিয়ে গত দুই মাসে চালের দাম বাড়ল তিন দফা।

কুষ্টিয়ার পাইকারি বাজারে চালের দাম কেজিপ্রতি ১ টাকা বাড়লে দেশের অন্য বাজারগুলোতে কেজিপ্রতি ৩ থেকে ৫ টাকা বেড়ে যায়। মিনিকেট চাল (সাধারণ) কুষ্টিয়ার পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি দরে। ঢাকাসহ জেলাগুলোতে বিক্রি হচ্ছে ৫২ থেকে ৫৫ টাকা কেজি।

মিল মালিকরা বলছেন, ধানের দাম বেশি, তাই চালের দাম বেশি হয়েছে। চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার সোমবার মিল মালিকদের নিয়ে বৈঠক করেন।

বাংলাদেশ চালকল মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুর রশিদের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, মিল মালিকদের গুদামে ধান মজুদ নেই যা দিয়ে তারা দিনের পর দিন মিল চালু রাখবে। মিল চালানোর জন্য ধান কিনতে হয়। আর ধানের দাম বেশি হওয়ায় চালের দাম বেড়েছে।

কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন বলেন, মিল মালিকদের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছে। কোনো যৌক্তিক কারণ ছাড়া চালের বাজার অস্থির করার চেষ্টা করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত বলেন, সোমবার মিল মালিকদের সঙ্গে কথা হয়েছে। নজরদারি বাড়ানো হয়েছে কুষ্টিয়ার সবকয়টি মিলের ওপর। কোনো রকম কালোবাজারি করে চালের দাম বৃদ্ধি করার সুযোগ দেওয়া হবে না।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 103 People

সম্পর্কিত পোস্ট