চট্টগ্রাম বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০

হাতে-পায়ে ব্যান্ডেজ নিয়ে হরতালে রিজভী

২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ১:৩১ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

হাতে-পায়ে ব্যান্ডেজ নিয়ে হরতালে রিজভী

হাতে-পায়ে ব্যান্ডেজ নিয়ে হরতালে অংশ নিয়েছেন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ঢাকা সিটি নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে রাজধানীতে হরতালের ডাক দেয় দলটি।

যদিও আজ রবিবারের (২ ফেব্রুয়ারি) সকাল-সন্ধ্যা ডাকা বিএনপির হরতালের প্রভাব এখন পর্যন্ত তেমনভাবে চোখে পড়েনি। তবে হরতাল পালন করতে সাতসকালে কয়েকজন নেতাকর্মী নিয়ে দলের নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হাজির হন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

এর আগে ঢাকা সিটি নির্বাচনে দলীয় মেয়র প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাতে গিয়ে হামলার শিকার হন বিএনপির এই শীর্ষ নেতা। সেই ঘটনায় তার হাতে এবং পায়ে এখনো ব্যান্ডেজ করা। রাজধানীর একটি বেসরকারী হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল বলেও জানা যায়। এরমধ্যেই হরতাল সমর্থনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দিনের প্রথম প্রহরে রিজভীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করে বিএনপির নেতাকর্মীরা।

পরে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে রিজভী দাবি করেন, ‘হরতাল স্বতস্ফূর্তভাবে পালিত হচ্ছে।’

রিজভী বলেন, হরতাল কোনো বিধ্বংসী অথবা জঙ্গী কর্মসূচি নয়। যুগে যুগে গণতান্ত্রিকামী-স্বাধীনতাকামী মানুষেরাই হরতাল দিয়েছে। মহাত্মা গান্ধী, নেলসন ম্যান্ডেলা হরতাল দিয়েছেন। হরতাল হচ্ছে স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের একটা ভাষা। সেই ভাষাটাই আমরা প্রয়োগ করছি।’

‘আমরা মনে করি এই উপলব্ধিটা মানুষের মধ্যে এসেছে। তখন দেইনি বলে এখন দেয়া যাবে না এমনতো কোনো কথা নেই। অন্যায়, অবিচার, জনগণের সঙ্গে প্রতারণার পরিমাণ এত বেশি হয়ে গেছে যে এখন আমাদের তীব্র থেকে তীব্রতর আন্দোলন কর্মসূচি দিতে হবে। সেই আন্দোলনেরই একটা ধাপ হচ্ছে হরতাল।’

রিজভী বলেন, ‘ইভিএম ভোট ডাকাতির একটা যন্ত্র। ইভিএমে ভোট ডাকাতিসহ সবকিছু মিলিয়ে যেভাবে নির্বাচন ছিনতাই করেছে, তার বিরুদ্ধেই এই হরতাল।’

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 112 People

সম্পর্কিত পোস্ট