চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্র থেমে নেই

২৫ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:৩৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কোকোর ৫ম মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে বক্তারা

জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্র থেমে নেই

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ সন্তান আরাফাত রহমান কোকো’র ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপিসহ অঙ্গসংগঠন। সভায় বক্তারা বলেন, জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্র থেমে নেই।

মহানগর যুবদল : ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক ও এলডিপির চেয়াম্যান ড. কর্নেল অলি আহমেদ বীর বিক্রম বলেছেন, জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্র থেমে নেই। আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সহধর্মিণী, মাটি ও মানুষের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সরকারের রোষানলে জেল হাজতে আজও বন্দি। ক্ষমতাসীন জালিম সরকারের

দুঃশাসনে দেশবাসী অতিষ্ঠ। ১/১১ সরকারের সরকারের মেন্টাল টর্চারে পরবর্তীতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মামলার জালে ফরমায়েশি সাজার রায়ে নানাবিধ মানসিক অত্যাচারে অল্প বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন শহীদ জিয়া ও খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্র বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক আরাফাত রহমান কোকো। রাষ্ট্রীয় হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর অপপ্রচারে লিপ্ত ক্ষমতালোভী আওয়ামী লীগ। আওয়ামী দুঃশাসনে দেশের সাধারণ জনগণ নিদারুন কষ্টে দিনাতিপাত করছে। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, শেয়ারবাজার লুট, ব্যাংক লুটে ব্যস্ত ক্ষমতাসীন। তিনি শুক্রবার বাদে জুমা আমানত শাহ মাজার সংলগ্ন মসজিদে আরাফাত রহমান কোকোর ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর যুবদলের মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তির সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক এস এম সাইফুল আলম। মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মুনাজাত পরিচালনা করেন ড. কর্নেল অলি আহমদ বীর বিক্রম। তিনি এ সময় কোকোর রূহের মাগফেরাত কামনা করেন। দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইকবাল হোসেন, সহ-সভাপতি এস এম শাহ আলম রব, এম এ রাজ্জাক, ফজলুল হক সুমন, মোহাম্মদ ইলিয়াছ, আবদুল গফুর বাবুল, মিয়া মোহাম্মদ হারুন, জসিমুল ইসলাম কিশোর, মুজিবুর রহমান মুজিব, সেলিম উদ্দিন রাসেল, তৌহিদুল ইসলাম রাসেল, রাজন খান, ওসমান গণি মুজিবুর রহমান রাসেল, জিল্লুর রহমান জুয়েল, মোহাম্মদ সাগীর, এস এম বখতেয়ার উদ্দিন, ইফতেখার শাহরিয়ার আজম, মো. ইকবাল, দিদারুল আলম, কমল জ্যোতি, জহিরুল ইসলাম জহির, কামরুল ইসলাম, মেজবাহ উদ্দিন মিন্টু, আশ্রাফ উদ্দিন, ইব্রাহিম খান, জাফর সাদেক সোহেল, আবুল কালাম আবু, মো. ইউসুফ, জাহাঙ্গির আলম মানিক, ইমরান ভূঁইয়া, সদস্য লতিফুল বারী সুমন, আবদুল্লাহ আল মামুন, সাব্বির ইসলাম ফারুক, আবদুর করিম, কুতুব উদ্দিন, মনজুর আলম মঞ্জু, শওকত খান রাজু প্রমুখ।
আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদ : মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, আরাফাত রহমান কোকো শহীদ জিয়াউর রহমান ও বেগম খালেদা জিয়ার সন্তান হয়েও ছিলেন সাদাসিধে জীবন যাপনে অভ্যস্ত। তিনি অত্যন্ত বিনয়ী, প্রচারবিমুখ এবং নিরহংকারী ব্যক্তি ছিলেন। রাজনৈতিক পরিবারে তার জন্ম হলেও তিনি রাজনীতিক হিসাবে নয় একজন ব্যবসায়ী ও ক্রীড়া সংগঠক হিসাবে বেশি পরিচিত ছিলেন। তিনি মহানগর আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে এক স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর বলেন, ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি দেশের গণআন্দোলনের এক শ্বাসরুদ্ধকর সময়ে বেগম খালেদা জিয়া গুলশানের নিজ কার্যালয়ে পুলিশি অবরুদ্ধ থাকা অবস্থায় মালয়েশিয়ায় আকস্মিক মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন আরাফাত রহমান কোকো।
দলীয় কার্যালয় সংলগ্ন জামে মসজিদে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। দোয়া মাহফিলে বেগম খালেদা জিয়া, তারেক রহমানের আশু রোগমুক্তি সুস্বাস্থ্য কামনা এবং জিয়াউর রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করা হয়। জামে মসজিদের খতিব মাওলানা এহসানুল হক দোয়া ও মিলাদ পরিচালনা করেন। নগরীর চকবাজারস্থ টাকশাহ মসজিদে এতিমদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।
কোকো স্মৃতি সংসদের সভাপতি হাসান রুবেলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এন মোহাম্মদ রিমনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এম এ আজিজ, মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, নাজিমুর রহমান, জাহিদুল করিম কচি, যুগ্ম সম্পাদক ইসকান্দর মির্জা, আর ইউ চৌধুরী শাহীন, ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, সামশুল হক, গাজী মো. সিরাজ উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক শিহাব উদ্দিন মুবিন, প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সালাম তালুকদার, স্বাস্থ্য বিষযক সম্পাদক ডা. এস এম সরওয়ার আলম, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আমিন মাহমুদ, নগর মহিলা দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফাতেমা বাদশা, কোতোয়ালী থানা বিএনপির সভাপতি মনজুর রহমান চৌধুরী, আবদুল হালিম স্বপন, মো. ইদ্রিস আলী, অধ্যক্ষ খোরশেদ আলম, খোরশেদ আলম কুতুবী, জেলী চৌধুরী, বেলায়েত হোসেন বুলু, আবু মুসা, আলমগীর নূর, আলী আজম, জাকির হোসেন, ইউসুফ সিকদার, গোলজার বেগম, আকতার খান, মো. সেকান্দর, জাহিদ উল্লাহ রাশেদ, মনজুর কাদের, হাজি মো. জাহেদ, মোস্তাক আহমদ, জিয়াউর রহমান জিয়া, মো. সালাহ উদ্দিন প্রমুখ।
দক্ষিণ জেলা বিএনপি : নগরীর জমিয়তুল ফালাহ জামে মসজিদে এক দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে দক্ষিণ জেলা বিএনপি। দোয়া মাহফিলে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের আশু রোগমুক্তি, সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু কামনা এবং জিয়াউর রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করা হয়। জামে মসজিদের পেশ ইমাম দোয়া ও মিলাদ পরিচালনা করেন। দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মীর মো. হেলাল উদ্দিন, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক আলী আব্বাস, সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য এনামুল হক এনাম, মোশারফ হোসেন প্রমুখ।
দক্ষিণ জেলা ছাত্রদল : দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের উদ্যোগে হযরত শাহ্ আমানত (র.) এর মাজার প্রাঙ্গণে খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিল, জেয়াফতশেষে দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. শহীদুল আলম শহীদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী আলহাজ জাফরুল ইসলাম চৌধুরী। জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মহসিনের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ মোশারফ হোসেন, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আনোয়ার চৌধুরী, এড. নুরুল ইসলাম, জামাল হোসেন, লায়ন হেলাল উদ্দিন, চেয়ারম্যান আলহাজ মুহাম্মদ হাসান চৌধুরী, দিল মোহাম্মদ মঞ্জু, মোজাম্মেল হক, নুরুল ইসলাম, ওসমান সিকদার, শওকত ওসমান, কামাল প্রমুখ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 218 People

সম্পর্কিত পোস্ট