চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

১৮ জানুয়ারি, ২০২০ | ২:২৪ পূর্বাহ্ণ

রুবী আকতার

বিনোদন জগতে চট্টগ্রামের অপর্ণা ঘোষ

অপর্ণা ঘোষ টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী এবং মডেল। মোস্তফা সরোয়ার ফারুকী পরিচালিত থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার (২০০৯) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তিনি পরিচিতি লাভ করেন। বেশকিছু টেলিভিশন ধারাবাহিক এবং খ- নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন। তার অভিনীত চলচ্চিত্রগুলো হল মৃত্তিকা মায়া (২০১৩), মেঘমল্লার (২০১৪), সুতপার ঠিকানা (২০১৫), দর্পণ বিসর্জন (২০১৬), ও ভুবন মাঝি (২০১৭)।
তিনি ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় সেরা পাঁচের একজন নির্বাচিত হন। ২০১৩ সালে মৃত্তিকা মায়া চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেত্রীর জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।
অপর্ণা শুরুতে মঞ্চে অভিনয় করতেন। বাবার অভিনয়ে আকৃষ্ট হয়ে ২০০৪ সালের দিকে নান্দকিার নামে চট্টগ্রামের একটি স্থানীয় থিয়েটার দলে মঞ্চকর্মী হিসাবে যোগ দেন তিনি। এরপর মঞ্চে উইলিয়াম শেকসপিয়র রচিত ওথেলো, দ্য মার্চেন্ট অব ভেনিস, পাপপূর্ণসহ বেশ কটি মঞ্চ নাটকে অভিনয় করেছেন।
পরবর্তীকালে তবুও ভালোবাসি নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে ছোট পর্দায় অভিনয় শুরু করেন। এছাড়াও বিভিন্ন টেলিভিশন বিঞ্জাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন অপর্ণা।
ছোটবেলা থেকেই অভিনেত্রী হওয়ার একটা সুপ্ত বাসনা তার মনের মধ্যে ছিল। তার বাবা আলোকনাথ ছিলেন চট্টগ্রামের থিয়েটারের সাথে যুক্ত। তার হাত ধরেই অভিনয়ে হাতেখড়ি হয় অপর্ণার। অপর্ণার শুরুটাও হয়েছিল মঞ্চ দিয়ে। প্রথম নাটক কোর্ট মার্শাল। তখন সবে এসএসসি দিয়েছিলেন। ছোটবেলা থেকেই কৌতূহলী ছিলেন অপর্ণা। একদিন সেই অজানা কৌতূহল থেকেই নাম লেখান ২০০৬ সালের লাক্স চ্যানেল আই সুন্দরী প্রতিযোগিতায়। সে সময় লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় নন্দিত কথাসাহিত্যিক ও নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদ তাঁর ‘দারুচিনি দ্বীপ’ ছবির জন্য নায়িকা খুঁজছেন। শেষ পর্যন্ত জরি চরিত্রটি না পেলেও সেরা পাঁচে জায়গা পান। প্রথম অভিনয় ছিল ‘তবুও ভালোবাসি’ নাটকে। এরপর আর নতুন কিছু নিয়ে ভাবতে হয়নি। মিডিয়া জগৎটাই তার কাছে হাজির হয়েছে নতুন নতুন রূপ নিয়ে। টিভি নাটক, মডেলিং, চলচ্চিত্রে অভিনয়, উপস্থাপনাসহ বিনোদন জগতের সবক্ষেত্রেই এখন তার রয়েছে সরব পদচারণা।
অপর্ণার পৈতৃক নিবাস চট্টগ্রামে। ২৫ সেপ্টেম্বর তার জন্মদিন।
অপর্ণার ব্যক্তিগত কিছু বিষয়:
১ জন মানুষের কথা বলুন, যিনি সবসময় আপনাকে অনুপ্রেরণা দেন?
আমার মা (আমার পুরো পৃথিবীর বলয়জুড়ে যার অবস্থান)
২টি কারণ, যেজন্য নিজেকে ভালো মানুষ মনে হয়? সব সময় সত্য কথা বলি। অন্যের আনন্দ দেখে আমিও আনন্দিত হই
৩টি দোষ, যা পাল্টাতে চাই:
আরেকটু সময় সম্পর্কে সচেতন হতে চাই। সহজে মানুষকে মাফ করে দিই সহজেই হাল ছেড়ে দিই
৪ জন প্রিয় অভিনেতা ও অভিনেত্রী; যাদের আমি অনুকরণ নয়, অনুসরণ করি:
সুবর্ণা মুস্তাফা, জয়া আহসান, রাইসুল ইসলাম আসাদ, হুমায়ূন ফরীদি
৫ জন প্রিয় পরিচালক, যাদের সাথে কাজ করার স্বপ্ন দেখি : আফজাল হোসেন, মেজবাউর রহমান সুমন, অনিমেষ আইচ, সঞ্জয় লীলা বানসালি, জেমস ক্যামেরুন,
৬টি প্রিয় চলচ্চিত্র :
জীবন থেকে নেয়া, অটোগ্রাফ, গেরিলা, আবার তোরা মানুষ হ, অপুর সংসার, মনের মানুষ, ৭টি জায়গা, যেখানে ঘুরতে পছন্দ করি :
রামু, শিলং (ভারত), কক্সবাজার, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক, কাশ্মির, সিকিম (ভারত)।
৮টি প্রিয় খাবার :
কাচ্চি বিরিয়ানি, জুস, গরুর ঝাল মাংস-পরোটা, আইসক্রিম, ফুচকা, চটপটি, পিজ্জা, ঝালমুড়ি।
৯ জন পছন্দের লেখক :
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, বিভূতিভূষণ চট্টোপাধ্যায়, সমরেশ মজুমদার, হুমায়ূন আহমেদ, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
১০টি প্রিয় নাটক :
রূপনগর, জীবনের ছোট ছোট ঢেউ, আজ রবিবার, কোথাও কেউ নেই, হাউসফুল, ঠুয়া, ৪২০, বন্ধন, ভালোবাসি তাই ভালোবেসে যাই, ঠেলাগাড়ি।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 706 People

সম্পর্কিত পোস্ট