চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

স্মৃতির ফ্রেমে আটকা নওরিন হাসান জেনি

২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৫:২৭ পূর্বাহ্ণ

ইয়াসমিন আকতার

স্মৃতির ফ্রেমে আটকা নওরিন হাসান জেনি

মাত্র তিন বছর বয়সে বাবার হাত ধরে শোবিজে পা রেখেছিলেন জেনি। তিব্বত ৫৭০ সাবানের সেই বিজ্ঞাপনের স্মৃতি যখন দর্শকদের স্মৃতির অতলে হারিয়ে যাওয়ার জোগার তখনই পূর্ণ তরুণী জেনি পর্দায় ফিরে আসেন পন্ডস ডেইলি ফেসওয়াশের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী তাহসানের বিপরীতে সেই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তিনি দর্শকদের মাতিয়ে দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে এ্যাপোলো হসপিটাল, লিপটন ইয়েলো, মেরিল বেবি লোশনসহ বেশকিছু চমৎকার বিজ্ঞাপনে পারফর্ম করে দর্শক মন জয় করে জেনি নাম লেখান অভিনয়ে। ‘রমিজের আয়না’ নাটকটি জেনিকে দর্শকপ্রিয় করে তোলো।

কর্মজীবন :
জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী তাহসানের বিপরীতে সেই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তিনি দর্শকদের মাতিয়ে দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে এ্যাপোলো হসপিটাল, লিপটন ইয়েলো, মেরিল বেবী লোশনসহ বেশকিছু চমত্কার বিজ্ঞাপনে পারফর্ম করে দর্শক মন জয় করে জেনি নাম লেখান অভিনয়ে। ‘রমিজের আয়না’ নাটকটি জেনিকে দর্শকপ্রিয় করে তোলো। বর্তমানে ‘টুলেট’ ও ‘শান্ত কুটির’ নাটকে তার অভিনয় দর্শক হৃদয় জয় করেছেন। তার অভিনীত কয়েকটি নাটকÑ ১. রমিজের আয়না, ২. টুলেট, ৩. উড়োজাহাজ ও ৪. শান্ত কুটির ইত্যাদি।

মনে হচ্ছে এই তো সেদিন মিডিয়ায় অভিষেক হয়েছে মডেল-অভিনেত্রী নওরীন হাসান খান জেনির। এর মধ্যে এক যুগ কেটে গেল! হ্যাঁ, সময়টা এভাবেই চলে যায়। আর সব স্মৃতির ফ্রেমে আটকা পড়ে। তেমনই নানান স্মৃতি আর গল্প এই শো-বিজ জগতে এসে জমা হয়েছে জেনির জীবনে। তিনি বলেন, সময় যে কতটা তাড়াতাড়ি চলে যায়! বুঝতেই পারলাম না একটা যুগ কেটে গেল। মনে হচ্ছে এই তো সবে শুরু হয়েছে আমার ক্যারিয়ার। তবে একটা কথা বলতে পারি, এই জগতে এসে কতশত গল্প, কত স্মৃতি জমা হয়েছে। আমার শুরু থেকেই সবার সঙ্গে খুব সহজে মানিয়ে নিতে পেরেছি। সবাইকে আপন করে নিতে পেরেছি। ২০০৫ সালে একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হওয়ার মধ্যদিয়ে মিডিয়াতে জেনির অভিষেক ঘটে। এরপর বহু নাটক এবং বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে জেনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। একজন অভিনেত্রী হিসেবে বহুমাত্রিক চরিত্রে অভিনয় করে এ পর্দাকন্যা দর্শকের কাছে নিজেকে নন্দিত একজন অভিনেত্রীতে পরিণত করেছেন। নানান ধরনের চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে জেনির অভিনয় নানান সময়ে দর্শককে মুগ্ধ করেছে। ভালো স্ক্রিপ্ট, ভালো চরিত্রে কাজ করার আগ্রহের কারণে কাজও করছেন বেছে বেছে। যে কারণে যে কাজগুলো এখন করছেন তাতে সন্তুষ্ট তিনি। লিভার ব্রাদার্স ২০০৫ সালে যখন ইউনিলিভার’-এ পরিবর্তিত হয় সেই বছরই এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেন জেনি। এটি নির্মাণ করেছিলেন অমিতাভ রেজা। এতে জেনির সঙ্গে ছিলেন সংগীত-তারকা তাহসান। প্রথম বিজ্ঞাপনেই দুজন দর্শক মাতিয়েছেন। এরপর জেনি অমিতাভ রেজার নির্দেশনাতে একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হন। মডেল হিসেবে আলোচনায় আসার পরপরই আশরাফুল আলম রিপনের নির্দেশনায় ‘এপিট ওপিট’ নাটকে অভিনয় করেন তিনি। জেনি অভিনীত প্রথম ধারাবাহিক নাটক ছিল ‘রমিজের আয়না’। এতে তার বিপরীতে ছিলেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। একযুগের এই ক্যারিয়ারের নানা গল্প আছে জেনির। রয়েছে পাওয়া না পাওয়ার কথাও। সেসব বলতে গিয়ে তিনি বলেন, আমার সৌভাগ্য যে আমি একজন অভিনেত্রী হতে পেরেছি ও আমার অবস্থান নিয়ে অবশ্যই সন্তুষ্ট। অন্য কোনো দেশে আমার জন্ম হলে সেখানে হয়তো একজন অভিনেত্রী হতে গেলে আমাকে অনেক কষ্ট করতে হতো। কিন্তু এখানে আমি আমার নিজের চেষ্টায় মেধা কাজে লাগিয়ে অভিনয়কে সমৃদ্ধ করার চেষ্টা করেছি। যে কারণে আমার অভিনয়ে দর্শক মুগ্ধ হয়েছেন। তারা আমার অভিনীত নাটক দেখেছেন। দর্শক আমাকে যে পরিমাণ ভালোবাসেন তা সত্যিই কৃতজ্ঞ হওয়ারই মতো। কিন্তু আক্ষেপ আমার এখানেই, আমি এখনো ভালো স্ক্রিপ্ট পাই না যে মন দিয়ে অভিনয় করবো। এ মুহূর্তে বেশকিছু ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন জেনি। এসবের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সকাল আহমেদের ‘ফুল মহল’, মাসুদ মহিউদ্দিনের ‘মায়াবন বিহারিণী’, দীপংকর দীপনের ‘টক্কর’ ইত্যাদি। এক যুগের ক্যারিয়ার কেটে গেলেও এখন পর্যন্ত বড় পর্দায় দেখা মেলেনি জেনির। অবশ্য এ নিয়ে তার চাওয়ার কথাও জানিয়েছেন। জেনি বলেন, অবশ্যই আমি চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে চাই, সে ক্ষেত্রে ভালো স্ক্রিপ্ট চাই, চাই একটি ভালো চরিত্র। তবেই করবো।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 122 People

সম্পর্কিত পোস্ট