চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৪ জুন, ২০২০

রহস্যে ঘেরা নীল তিমি
রহস্যে ঘেরা নীল তিমি

১০ মার্চ, ২০২০ | ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ

রহস্যে ঘেরা নীল তিমি

নীল তিমিকে বলা হয় পৃথিবীর সবচেয়ে বড় স্তন্যপায়ী প্রাণী। এর সম্পর্কে মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। বিশাল এই প্রাণীর জীবনাচরণ আজও মানুষের মধ্যে বিস্ময়ের উদ্রেক করে। এরা মাছের মতো ফুলকা দিয়ে নিঃশ্বাস নেয় না, আবার ডিমও পাড়ে না। অক্সিজেন নেয় মানুষের মতো ফুসফুস দিয়ে। আবার বসবাস করে পানিতে। পানিতেই খাওয়ায় শিশু তিমিকে দুধ। সমুদ্রে রাজত্ব করে বেড়ানো এই তিমি লম্বায় ১০০ ফুট হয়, যা কিনা সবচেয়ে বড় ডাইনোসরের দ্বিগুণ। তিমিকে অনেকেই মাছ বলে থাকে। আসলে কিন্তু তিমি মাছ না। মাছের কোনো বৈশিষ্ট্যই নেই তিমির মধ্যে। বিভিন্ন প্রজাতির তিমি রয়েছে। যেমন : কিলার তিমি, নীল তিমি, পাইলট তিমি, হাম্পব্যাক তিমি, বেলুগা তিমি, ফিন তিমি, গ্রে তিমি ইত্যাদি। এদের মধ্যে সব থেকে বড় হচ্ছে নীল তিমি। নীল তিমির জিভের ওজনই একটা হাতির ওজনের সমান। এটা এত বড় যে একটা ফুটবল টিমের সবাই দাঁড়াতে পারবে অনায়াসে। এর হৃৎপি- একটা প্রাইভেট কারের সমান। তাহলে ভাবুন তো এই তিমির ওজন কত হবে? এদের ওজন প্রায় ২০০ টনের মতো, যা কি না আফ্রিকার পূর্ণবয়স্ক ৪০ হাতির সমান। নবজাতক নীল তিমিও কম যায় না! সেও বিশ্বের সব থেকে বড় নবজাতকের স্থান দখল করে আছে। ওজন প্রায় তিন টন।
স্তন্যপায়ী প্রাণী হলেও নীল তিমি থাকে পানিতে। তবে তাকে অক্সিজেন গ্রহণ করার জন্য একটু পরপর পানির ওপরে ভেসে উঠতে হয়। ওপরের চোয়াল থেকে নিচের চোয়াল পর্যন্ত ঝুলে থাকে এই ব্যালিন।

The Post Viewed By: 283 People

সম্পর্কিত পোস্ট