চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

ইরানে ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১৭৬ আরোহীই নিহত

৯ জানুয়ারি, ২০২০ | ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ

পূর্বকোণ ডেস্ক

ইরানে ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১৭৬ আরোহীই নিহত

ইরানের রাজধানী তেহরানের বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের সময় বিধ্বস্ত হওয়া প্লেনের ১৭৬ জন আরোহীই প্রাণ হারিয়েছে। বুধবার (৮ জানুয়ারি) দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাতে এমন তথ্যই জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, বুধবার সকালে তেহরানের ইমাম খোমেনি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নকালে যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে ইউক্রেন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের বোয়িং-৭৩৭ মডেলের একটি প্লেন বিধ্বস্ত হয়েছে। প্লেনটিতে যাত্রী-ক্রু মিলে মোট ১৮০ জন আরোহী ছিল। যাদের কেউ-ই আর বেঁচে নেই বলে জানা গেছে। প্লেনটি ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উদ্দেশে উড্ডয়ন করেছিল। উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরেই সেটি বিধ্বস্ত হয়। প্রাথমিকভাবে প্লেনটিতে ১৮০ জন আরোহী ছিল বলে জানা গেলেও পরে ১৭৬ জন থাকার ব্যাপারটি নিশ্চিত করে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনসহ স্থানীয় সংবাদমাধ্যম।

বিধ্বস্ত প্লেনের ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার : এদিকে বিধ্বস্ত হওয়া ইউক্রেনিয়ান এয়ারলাইন্সের প্লেনের একটি ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার করা হয়েছে। যান্ত্রিক ক্রটির কারণে প্লেনটি বিধ্বস্ত হয় বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ইউক্রেনের এক মন্ত্রীর বরাতে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, প্লেন দুর্ঘটনায় নিহত যাত্রীদের মধ্যে ৮২ জন ইরানিয়ান, ৬৩ জন কানাডিয়ান ও তিনজন ব্রিটিশ নাগরিক। তবে বাকি আরোহীদের নাগরিকত্ব পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে ইরান-যুক্তরাষ্ট্রের চলমান উত্তেজনার মধ্যে প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনাকে অনেকে ‘সন্ত্রাসী’ হামলা বলে ‘আশঙ্কা’ করছেন। তবে বিষয়টিকে ‘ভিত্তিহীন’ উল্লেখ করে ইরানে অবস্থিত ইউক্রেনের দূতাবাস জানিয়েছে, প্লেনটির ইঞ্জিনে ত্রুটির কারণে বিধ্বস্ত হয়, কোনো ধরনের ‘সন্ত্রাসী’ হামলার ঘটনা ঘটেনি।

এর আগে ২০১৯ সালে ইরানের রাজধানী তেহরানে প্লেন বিধ্বস্ত হয়ে ১৬ আরোহীর ১৫ জনই প্রাণ হারিয়েছিল। ২০১৪ সালে তেহরানের মেহরাবাদ বিমানবন্দরে ৪৮ আরোহী নিয়ে একটি প্লেন বিধ্বস্ত হয়। সেসময় ৩৯ জন নিহত হয়েছিল।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 82 People

সম্পর্কিত পোস্ট