চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০

এক গানে বাংলাসহ ১৪ ভাষা ব্যবহার, গিনেস বুকে চেন্নাইয়ের কিশোর

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৬:২১ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

এক গানে বাংলাসহ ১৪ ভাষা ব্যবহার, গিনেস বুকে চেন্নাইয়ের কিশোর

সাত মিনিটের একটা গানে ব্যবহৃত হয়েছে বাংলা, হিন্দি এবং ইংরেজিসহ ১৪টি ভাষা। আর এই গানটি প্রস্তুতি নিতে সময় লেগেছে ৭ হাজার ৫০০ ঘণ্টা! আর তাই ‘৭৫০০’ শিরোনামের এমন একটি গান তৈরি করে গিনেস বুকে ঠাঁই পেয়েছেন অঙ্কিত গুপ্ত নামে এক কিশোর।

গত ৯ সেপ্টেম্বর অঙ্কিতকে ‘মোস্ট ল্যাঙ্গুয়েজেস ফিচারড অন অ্য সিডি সিঙ্গেল’ অর্থাৎ এক গানে সবচেয়ে বেশি ভাষা ব্যবহারকারীর স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। ১২ জন শিল্পীর গাওয়া এই গানের প্রোডিউসার এবং মেকার অঙ্কিত নিজেই।

চেন্নাইয়ের ১৬ বছর বয়সী দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়া অঙ্কিতকে স্থানীয় গণমাধ্যমে হিপ-হপ শিল্পী হিসেবে পরিচয় করানো হয়েছে। কিন্তু যে উদ্দেশ্য নিয়ে গানটি তৈরি করেছেন তাতে বোঝা যায় নিজেকে তিনি শুধু ‘শিল্পী’ হিসেবেই পরিচয় দিতে ভালোবাসবেন। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ‘৭৫০০’ গানের থিম সম্পর্কে লিখেছেন ‘মিউজিকের কোনো ভাষা নেই।’

অঙ্কিত বলেন, ‘কাগজ এবং কলম দিয়ে শুরু হওয়া গানের মতো আমারটাও একই।

পেছনের কথা জানাতে গিয়ে অঙ্কিত চেন্নাইয়ের একটি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘২০১৯ সালের নভেম্বরে মজা করতে করতে একটি গানের ভাবনা আমার মাথায় আসে। এরপর এল লকডাউন এলে করোনার দিনগুলোতে গানে আরও মন দিই। তখন মনে হল কয়েকটি ভাষা যুক্ত করা উচিত। আমি এআর রহমান স্যারের দর্শনের বড় ভক্ত। আমি বিশ্বাস করি, গানের ক্ষেত্রে ভাষাগত কোনো বাধা থাকতে পারে না।

অঙ্কিত জানিয়েছেন, গানটি নিয়ে কাজ শুরু করার দিন থেকে এডিট পর্যন্ত তার ৭৫০০ ঘণ্টা বা ৩১৩ দিন সময় লেগেছে। গানটিতে বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলেগু, কন্নড়, মালায়ালাম, আরবি, জার্মান, ইতালিয়ান, নেপালি, জ্যামাইকান, সুইডিশ এবং স্প্যানিশ ভাষা যুক্ত করা হয়েছে।

গানটি ইতিমধ্যেই গিনেস বুকের পাশাপাশি ইন্ডিয়া বুক অব রেকর্ডস ও এশিয়া বুক অব রেকর্ডস থেকে সর্বাধিক ভাষার গানের স্বীকৃতি পেয়েছে।

 

 

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 121 People