চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলাকারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

২৭ আগস্ট, ২০২০ | ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলাকারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে ঢুকে হামলা চালিয়ে ৫১ জনকে হত্যার ঘটনায় শ্বেতাঙ্গ বর্ণবাদী ব্রেন্টন টারান্টকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয়  সময় বৃহস্পতিবার তার বিরুদ্ধে এই রায় ঘোষণা করা হয়।

২৯ বছর বয়সী এই অস্ট্রেলিয়ান নাগরিককে প্যারোলে মুক্তির সুযোগ না রেখে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক, যা নিউ জিল্যান্ডের আইনে সর্বোচ্চ সাজা।

এ মামলায় দুটি মসজিদে গুলি চালিয়ে ৫১ জনকে হত্যা, ৪০ জনকে হত্যাচেষ্টা এবং সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ আনা হয়েছিল ব্রেন্টন ট্যারেন্টের বিরুদ্ধে। আদালতে সব দায় তিনি স্বীকার করে নেন। 

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে জুমার নামাজের পর ভয়াবহ ওই হামলা হয়। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে পাঁচজন ছিলেন বাংলাদেশের নাগরিক।

ক্রাইস্টচার্চের আল নূর ও লিনউড মসজিদের পর তৃতীয় আরেকটি মসজিদে হামলা চালানোর পরিকল্পনাও তার ছিল। মসজিদগুলো পুড়িয়ে দিয়ে ‘যত বেশি সম্ভব’মানুষকে তিনি হত্যা করতে চেয়েছিলেন বলে উঠে আসে এ মামলার বিচারে।

স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র দিয়ে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিলেন ব্রেন্টন। হামলার দৃশ্য ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচারও করেন তিনি। হামলার জেরে দেশটিতে সব ধরনের আধা স্বয়ংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্র নিষিদ্ধ করা হয়। বিশ্বকে নাড়িয়ে দেয় এই হামলা।

ক্রাইস্টচার্চের উচ্চ আদালতের বিচারক ক্যামেরন মান্ডার বলেছেন, আসামি ব্রেন্টন ট্যারেন্ট যে অপরাধ করেছেন, তার শাস্তি হিসেবে নির্দিষ্ট মেয়াদের সাজা যথেষ্ট নয়।

বিচারক আরো বলেন, হামলাকারী টারান্টের কর্মকাণ্ডকে ‘অমানবিক’।

ট্যারেন্টের আগে নিউ জিল্যান্ডে শুধু উইলিয়াম বেল নামের তিন খুনের এক আসামী প্যারোল ছাড়া ৩০ বছরের কারাদণ্ড পেয়েছিলেন। এ পর্যন্ত দেশটিতে দেওয়া সবচেয়ে দীর্ঘতম মেয়াদের কারাদণ্ড সেটিই ছিল। 

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 98 People

সম্পর্কিত পোস্ট