চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

হায়া সোফিয়ার খ্রিস্টীয় চিহ্ন ঢেকে দেয়া হবে নামাজের সময়
হায়া সোফিয়ার খ্রিস্টীয় চিহ্ন ঢেকে দেয়া হবে নামাজের সময়

১৫ জুলাই, ২০২০ | ৯:৫১ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

হায়া সোফিয়ার খ্রিস্টীয় চিহ্ন ঢেকে দেয়া হবে নামাজের সময়

তুরস্কে পুনরায় মসজিদে রূপান্তর হওয়া ঐতিহাসিক জাদুঘর হায়া সোফিয়াতে নামাজের সময় ভেতরের খ্রিস্টীয় চিহ্নগুলো ঢেকে দেয়া হবে।

আলজাজিরা জানায়, মুসল্লিরা চলতি মাসের ২৪ তারিখ থেকে হায়া সোফিয়াতে নামাজ আদায় করতে পারবেন। তুরস্কের আদালত গত শুক্রবার বিখ্যাত এই জাদুরঘরকে মসজিদ হিসেবে ঘোষণা দেয়।

ক্ষমতাসীন এ কে পার্টির এক মুখপাত্র জানান, নামাজের সময় মসজিদটির ভেতরে থাকা খ্রিষ্টীয় চিহ্ন বিশেষ একটি লেজারের মাধ্যম ঢেকে দেয়া হবে।

এ কে পার্টির মুখপাত্র ওমর সেলিক জানান, জাদুঘরের ভিতর বহু জায়গায় ঐতিহাসিক চিহ্নগুলোকে নামাজের সময় আপাতত ঢেকে রাখা হবে। দর্শনার্থীদের জন্য নামাজের সময় ছাড়া অন্যান্য সময় হায়া সোফিয়া খোলা থাকবে। ঐতিহাসিক চিহ্নগুলো উন্মুক্ত থাকবে। বিনা খরচে এটি পরিদর্শন করতে পারবে দর্শনার্থীরা। তবে পরবর্তী সময়ে খ্রিস্টীয় চিহ্নগুলো একেবারে মুছে ফেলা হবে কি না তা নিয়ে তিনি কিছুই বলেননি।

বাজেন্টাইন সাম্রাজ্যের অধিপতি সম্রাট প্রথম জাস্টিনিয়ানের নির্দেশে ষষ্ঠ শতাব্দীতে হায়া সোফিয়া নির্মিত হয়। তৎকালীন সময়ে এটিই ছিল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গির্জা। এরপর ১৪৫৩ সালে ইস্তাম্বুল অটোম্যান সাম্রাজ্যের দখলে গেলে একে মসজিদে পরিণত করা হয়। পরে ১৯৩৪ সালে মুস্তফা কামাল আতাতুর্ক স্বাক্ষরিত এক ডিক্রিতে মসজিদটিকে জাদুঘরে পরিণত করা হয়। জাদুঘর হিসাবে দর্শনীয় স্থান হয়ে উঠলেও বহু জায়গায় থাকা খ্রিষ্টীয় চিহ্নগুলো সরানো হয়নি।

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 116 People

সম্পর্কিত পোস্ট