চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট, ২০২০

সর্বশেষ:

নিউইয়র্কে পাঠাওয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ফাহিমের খন্ডিত লাশ উদ্ধার
ফাহিমের ফ্ল্যাটে হত্যার পরদিনও ঢুকেছিল খুনি

১৫ জুলাই, ২০২০ | ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

নিউইয়র্কে পাঠাওয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ফাহিমের খন্ডিত লাশ উদ্ধার

রাইড শেয়ারিং এপ পাঠাওয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহকে খুন করা হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ফাহিমের এপার্টমেন্ট থেকে তার খন্ডিত লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (১৫ জুলাই) বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ম্যানহাটনের নিজস্ব অ্যাপার্টমন্টে থেকে তার খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিউইয়র্ক পুলিশের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম ডেইলি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফাহিমের খোঁজ না পেয়ে তার বোন হেল্পলাইন ৯১১-এ ফোন করলে পুলিশ ম্যানহাটনের এপার্টমেন্টে গিয়ে ফাহিমের খণ্ডিত মরদেহ পায়। মরদেহের পাশে একটি বৈদ্যুতিক করাতও পাওয়া গেছে।

নিউইয়র্ক পুলিশের মুখপাত্র সার্জেন্ট কার্লোস নিভেস বলেন, আমরা একটি খণ্ডিত মরদেহ পেয়েছি। মাথা, দুই হাত, দুই পা- সব শরীর থেকে আলাদা করা ছিল। তবে সবকিছুই ঘটনাস্থলে পড়ে ছিল। এখন পর্যন্ত এই হত্যাকাণ্ডের কোনো মোটিভ আমাদের কাছে নেই।

নিউইয়র্ক পুলিশ জানায়, যে এপার্টমেন্টে মরদেহ পাওয়া গেছে তা গত বছর সাড়ে ২২ লাখ ডলারে কিনেছিলেন ফাহিম।

ফাহিমের এপার্টমেন্ট ভবনের লিফটের নিরাপত্তা ক্যামেরায় ধারণকৃত ফুটেজের বরাত দিয়ে পুলিশের একটি সূত্র জানায়, গত সোমবার ফাহিমকে লিফটে উঠতে দেখা যায়। তিনি লিফটে ওঠার পরপরই তাকে অনুসরণ করে স্যুট পরিহিত আরেকজনকেও উঠতে দেখা যায়, যার হাতে গ্লাভস, মুখে মাস্ক ও মাথায় হ্যাট ছিল।

ফুটেজে আরও দেখা গেছে, নিজের ফ্লোরে উঠে লিফট থেকে নামার পরপরই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ফাহিম। সম্ভবত তাকে গুলি বা অন্য কোনোভাবে আঘাত করা হয়েছিল। ‘হামলাকারীর হাতে একটি স্যুটকেস ছিল। সে ছিল অত্যন্ত পেশাদার।’

পুলিশ ফাহিমের এপার্টমেন্টে গিয়ে তার খণ্ডিত মরদেহ পাওয়ার পর এপার্টমেন্ট ভবনটিকে ঘিরে রাখে। পরে ঘটনাস্থল থেকে পরীক্ষার জন্য আঙ্গুলের ছাপ ও ফরেনসিক নমুনা সংগ্রহ করেন গোয়েন্দারা।

নিহত ফাহিম সালেহ বাংলাদেশের রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম পাঠাও ছাড়াও নাইজেরিয়াতে ‘গোকান্ডা’ নামক আরেকটি রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম চালু করেন। পেশায় ওয়েবসাইট ডেভেলপার ফাহিম অ্যাডভেঞ্জার ক্যাপিটাল গ্লোবাল নামক একটি ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠানেরও উদ্যোক্তা ছিলেন।

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 113 People

সম্পর্কিত পোস্ট