চট্টগ্রাম শনিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২০

সর্বশেষ:

পাপুলের ঘটনায় কুয়েতে সেনা কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

১২ জুলাই, ২০২০ | ৩:১৭ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাপুলের ঘটনায় কুয়েতে সেনা কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

মানবপাচার ও মানি লন্ডারিংয়ের দায়ে গ্রেপ্তার হওয়া বাংলাদেশের সংসদ সদস্য কাজী শহীদুল ইসলাম পাপুলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি মেজর জেনারেল শেখ মাজান আল-জারাহকে গ্রেপ্তার করেছে কুয়েত।

গালফ নিউজের খবরে বলা হয়েছে, কুয়েতের নাগরিকত্ব, পাসপোর্ট ও রেসিডেন্স বিষয়ক দপ্তরের দায়িত্বে থাকাকালে তিনি মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে পাপুলের বেশ কিছু কাজ দ্রুত অনুমোদনের ব্যবস্থা করেছেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। বৃহস্পতিবার তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে পাবলিক প্রসিকিউশন। এর ভিত্তিতেই শুক্রবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বরখাস্তের আগ পর্যন্ত মাজেন আল-জাররাহ নামের এই কর্মকর্তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছিলেন।

মাজেন আল-জাররাহ-এর বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণ ছাড়াও বাংলাদেশের এমপি শহীদুল ইসলাম পাপুলের সঙ্গে সন্দেহজনক আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ রয়েছে।

অর্থ, মানবপাচার ও ভিসা বাণিজ্যের অভিযোগে গত ৬ জুন লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহীদুল ইসলাম পাপুলকে আটক করে কুয়েতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে কুয়েতে এক বাংলাদেশি নাগরিককে গ্রেপ্তারের পর তার নাম সামনে আসে। রিমান্ডে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গত ২৪ জুন এমপি পাপুলকে ২১ দিনের জন্য কুয়েতের কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

পাপুলকে গ্রেপ্তারের পর তার সঙ্গে কুয়েতের বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার যোগসাজশের প্রমাণ হাতে পায় দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কর্মকর্তারা জানতে পারেন, এমপি পাপুলের জন্য ২৩ হাজারের বেশি কর্মীর এন্ট্রি ভিসার অনুমোদনে সহায়তা দিয়েছেন কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী আন্ডার সেক্রেটারি মেজর জেনারেল মাজেন আল-জাররাহ।

এসব তথ্য সামনে আসার পরই মেজর জেনারেল মাজেন আল-জাররাহ-এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে শুরু করে কর্তৃপক্ষ।

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 107 People