চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

৬ জুলাই, ২০২০ | ৩:৪২ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অগ্নিকাণ্ডে ইরানের পারমাণবিক কেন্দ্রে ‘ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি’

ইরানের নাতাঞ্জ পারমাণবিক কেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডে ‘ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি’ হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার এই অগ্নিকান্ড ঘটে বলে দেশটির জ্বালানী কর্তৃপক্ষের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন। কেন্দ্রের মুখপাত্র আগুনের কারণ নির্ধারণ নিয়ে বললেও এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলেন নি।

বিবিসি জানায়, আগুনে নাতাঞ্জ পারমাণবিক কেন্দ্রের সেন্ট্রিফিউজ কারখানা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম উৎপাদন করতে সেন্ট্রিফিউজের দরকার হয়। এই ইউরেনিয়াম রিয়েক্টকে জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যায় আবার পারমাণবিক অস্ত্র তৈরিতেও ব্যবহার করা যায়।

এদিকে, এ ঘটনার জন্য সম্ভাব্য সাইবার-অন্তর্ঘাতকে দায় দিয়েছেন কিছু ইরানি কর্মকর্তা।

অগ্নিকাণ্ডে উল্লেখযোগ্য ক্ষয়ক্ষতি হলেও কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছেন ইরানের এটমিক এনার্জি অর্গানাইজেশনের মুখপাত্র বেহরুজ কামালভান্দি।
রবিবার (৫ জুলাই) ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার (এইওআই) মুখপাত্র বেহরুজ কামালভানদি বলেন, নিরাপত্তা কর্মকর্তারা ‘নিরাপত্তাজনিত কারণে’ নাতাঞ্জের আগুন নিয়ে কথা বলছেন না।

তাছাড়া “এই ঘটনায় মধ্যবর্তী সময়ে উন্নত সেন্ট্রিফিউজের উন্নয়ন ও উৎপাদন কমে যেতে পারে। ইরান ক্ষতিগ্রস্ত ভবনটির জায়গায় আরও বড় একটি ভবন তৈরি করবে, সেখানে আরও উন্নত যান্ত্রপাতি থাকবে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, নির্মাণাধীন একটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল শেডে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। পরে প্রকাশ করা একটি ছবিতে দেখা যায় ভবনটি আগুনে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত।

পরে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বিশ্লেষকরা এটিকে নতুন সেন্ট্রিফিউজ সংযোজন কারখানা হিসেবে শনাক্ত করেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স ইরানি কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে বলেছে যে, তারা বিশ্বাস করেন এটি সাইবার এটাকের ঘটনা, তবে তারা কোনো প্রমাণ উপস্থাপন করেননি।

ইরানে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আরও কয়েকটি জায়গায় আগুন ও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। নাতাঞ্জে আগুন লাগার ছয়দিন আগে পারচিন মিলিটারি কমপ্লেক্সের কাছে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 129 People