চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

৬ জুলাই, ২০২০ | ১:১৪ অপরাহ্ণ

চীনে এবার প্লেগের হানা, সতর্কতা জারি

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের প্রকোপে বিপর্যস্ত বিশ্ব। এরমধ্যেই দেশটিতে ‘বুবোনিক প্লেগ’ রোগ ছড়িয়ে পড়ার ঘটনা ঘটেছে।

বিবিসি জানিয়েছে, অভ্যন্তরীণ মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের একটি শহরে বুবোনিক প্লেগের একটি ঘটনা নিশ্চিত হওয়ার পর চীন কর্তৃপক্ষ সতর্কতা বাড়িয়েছে।

নতুন এই ভাইরাসটি মহামারী আকার ধারণ করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন দেশটির বিজ্ঞানীরা।

শনিবার বায়ানুরের একটি হাসপাতালে প্রথম বিউবনিক প্লেগ রোগী শনাক্ত হয়। এর পরপরই সতর্কতা জারির সিদ্ধান্ত নেয় দেশটির সরকার। তবে তিনি কিভাবে আক্রান্ত হয়েছেন তা এখনও জানা যায়নি।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ আছেন। তাকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। 

বুবোনিক প্লেগ হলো- রোগীদের হঠাৎ জ্বর, মাথাব্যথা, ঠান্ডা লাগা এবং দুর্বলতা এবং এক বা একাধিক ফোলা, কোমল এবং বেদনাদায়ক লসিকা গেঁজের বিকাশ ঘটা।

ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণের কারণে সৃষ্ট বুবোনিক প্লেগ মারাত্মক হতে পারে, তবে সাধারণভাবে পাওয়া এন্টিবায়োটিকের সাহায্যে চিকিৎসা করা যায়।

তিন স্তরের সর্তকর্তা জারি করে প্লেগ বহন করতে পারে এমন প্রাণীদের শিকার ও খাওয়া জনসাধারণকে নিষেধ করা হয়েছে।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম পিপলস ডেইলি অনলাইনে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি ২০২০ সালের শেষ পর্যন্ত এই নির্দেশনা জারি থাকবে।

স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বর্তমানে শহরে প্লেগ রোগ মহামারীর আকার নেয়ার মতো আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে আত্মসুরক্ষায় তৎপর এবং সচেতন থাকতে হবে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিষয়ে কোনো অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে তা স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্র বা সংশ্লিষ্ট সরকারি দপ্তরে জানাতে হবে।

এদিকে চীনের অন্য রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা সিনহুয়ার প্রতিবেদন অনুসারে, পশ্চিম মঙ্গোলিয়ার খোভদ প্রদেশে সম্প্রতি দুই সম্ভাব্য বুবোনিক প্লেগ রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। তাদের টেস্টে রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

আক্রান্তদের মধ্যে একজনের বয়স ২৭ বছর এবং অন্য জনের বয়স ১৭ বছর। তারা সম্পর্কে দুই ভাই।

ওই প্রদেশেরই দুটি আলাদা হাসপাতালে দুজনের চিকিৎসা চলছে। তাদের সংস্পর্শে আশা আরও ১৪৬ জনকে চিহ্নিত করে আইসোলেট করা হয়েছে। হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা চলছে।

প্লেগ রোগের তিনটি ধরনের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বিউবনিক প্লেগ। ব্যাকটেরিয়াজনিত এই অসুখ ইঁদুরজাতীয় প্রাণীদের শরীরে থাকা পোকা বা আশপাশে বসবাসকারী মাছির মাধ্যমেও ছড়াতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে, উপযুক্ত চিকিৎসা না পেলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই অসুখটি প্রাপ্তবয়স্ক একজন রোগীকে মেরে ফেলতে পারে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 400 People