চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

৩ জুলাই, ২০২০ | ১২:৪৯ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মিয়ানমারে জেড খনিতে ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১৩

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে কাচিন প্রদেশে জেড পাথরের একটি খনিতে ভূমিধসের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬১ জন হয়েছে।

দেশটির কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, দুর্ঘটনাস্থলে শুক্রবার দ্বিতীয় দিনের মত উদ্ধার অভিযান চলছে এবং মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে প্রদেশটির হপাকান্ত এলাকায় ঘটনা ঘটে।  

ওপেন পিট পদ্ধতিতে খোড়া এসব খনিতে রত্নপাথর খোঁজার সময় মাটি, কাদা খনি বর্জ্য সরিয়ে স্তূপ করে রাখা হয়, যাকে বলে টেইলিং।

দমকল বাহিনী জানিয়েছেসকালে খনিতে অলঙ্কারে ব্যবহৃত পাথর সংগ্রহ করছিলেন খনি শ্রমিকরা। এসময় খনিতে ধসের ঘটনা ঘটে। গত কয়েকদিন যাবত তুমুল বৃষ্টির কারণে কাদার স্রোতের নিচে চাপা পড়ে শ্রমিকদের মৃত্যু হয়েছে।

মিয়ানমারের তথ্য দপ্তরের স্থানীয় কর্মকর্তা থার লিন মং শুক্রবার সকালে সাংবাদিকদের জানান, তখন পর্যন্ত ১৬১ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, ৪৩ জনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। 

তিনি বলেছেন, নিহতদের অর্ধেকের লাশই শনাক্ত করা যায়নি। তাদের অনেকেই অন্য এলাকা থেকে আসা শ্রমিক। খনির পাশেই তাঁবুতে তারা থাকতেন।

থার লিন মংয়ের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, শুক্রবার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে প্রায় ৮০ হাজার ডলার সহায়তা দেওয়া হবে। স্থানীয় প্রশাসন, মিয়ানমারের জেমস অ্যান্ড জুয়েলারি ব্যবসায়ীদের সংগঠন এবং একটি মাইনিং কোম্পানির উদ্যোগে এই সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।   

বিশ্বে সবুজ রংয়ের প্রায়স্বচ্ছ রত্ন পাথর জেডের সবচেয়ে বড় উৎস মিয়ানমার। সেখানে উত্তোলিত জেড পাথরের বেশিরভাগটাই প্রতিবেশী দেশ চীনে রপ্তানি হয়। 

দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় কাচিন প্রদেশ আর হপাকান্ত জেডের খনির জন্য বিখ্যাত। কিন্তু সরকারের কার্যকর তদারকি না থাকায় সেখানে প্রায়ই প্রাণঘাতী ভূমিধস বিভিন্ন দুর্ঘটনা ঘটে।

 

পূর্বকোণ/পিআর

 

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 196 People

সম্পর্কিত পোস্ট